রাজধানীর ৯২৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অগ্নি দুর্ঘটনার ঝুঁকিতে

  অনলাইন ডেস্ক

১৩ অক্টোবর ২০১৭, ১৬:১৩ | আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০১৭, ১৬:২৩ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: সংগৃহীত
ঢাকা মহানগরীর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর ১০৩৫ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯২৪টি প্রতিষ্ঠান ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। অতিরিক্ত ঝুঁকিতে আছে ৯৪টি প্রতিষ্ঠান। এবং ১৭টি রয়েছে সন্তোজনক অবস্থায়। দুর্যোগ মোকাবিলার প্রস্তুতি নিয়ে চলতি বছরে স্কুল, কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর ফায়ার সার্ভিসের চালানো জরিপে এ কথা বলা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের সরেজমিন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অগ্নি দুর্ঘটনার ঝুঁকি মোকাবেলার ব্যবস্থা নিতে এরইমধ্যে এসব প্রতিষ্ঠানকে দুই দফা চিঠি দিয়েছেন তারা। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ ও সচেতন করে গড়ে তুলতে পারলে যেকোন দুর্ঘটনার আশঙ্কা কমিয়ে আনা সম্ভব।

ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটের ভেতরের অবস্থা একজন সাধারণ রোগী কিংবা দুর্বলচিত্তের মানুষের জন্য সহ্য করা অত্যন্ত কঠিন। আগুনে পোড়া ৫০ শতাংশরে বেশি রোগী শিশু। যাদের একটু সচেতন করা গেলে দুর্ঘটনার ঝুঁকি অনেকটা কমানো সম্ভব। এক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকেই উদ্যোগ নিতে হবে বলে জানিয়েছেন এখানকার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

যদিও, পাঠ্য বইয়ে আগুন লাগার মত দুর্ঘটনার ঝুঁকি মোকাবেলার বিষয় খুবই সীমিত। এ সম্পর্কে বাস্তব জ্ঞান বা প্রশিক্ষণ না থাকায় অনেকেই জানেন না ব্যবহারিক প্রয়োগ।

তবে, এতোকিছুর বাইরেও খুব স্বল্প পরিসরে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার সহযোগিতায় বেশ কয়েকটি স্কুলে ঝুঁকি মোকাবিলায় হাতে কলমে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। তবে যতটুকু প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় তা যথেষ্ট নয় বলে জানিয়েছেন সমাজ বিজ্ঞানীরা। তারা বলেছেন, ঢাকার ১০৩৫ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যদি ৯২৪টি প্রতিষ্ঠান অতিরিক্ত ঝুঁকিতে থেকে থাকে তবে প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের উচিৎ সরকারের কাছ থেকে পর্যাপ্ত সহযোগিতা নিয়ে ফায়ার সার্ভিস ও অন্যান্য সহকারী প্রতিষ্ঠানের সাহায্যার্থে এই ঝুঁকি মোকাবিলায় হাতে কলমে প্রশিক্ষণে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে