x

সদ্যপ্রাপ্ত

  •  বিপিএল এর পঞ্চম আসরের শিরোপা জিতল রংপুর রাইডার্স। মাশরাফির হাতে চতুর্থ ট্রফি

অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধা ‘উল্কা খায়েরের’ পাশে সাংসদ মুক্তা

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৭ নভেম্বর ২০১৭, ১৯:০৯ | অনলাইন সংস্করণ

রাস্তায় পরে থাকা অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধা ‘উল্কা খায়েরের’ (৬৭) পাশে দাড়িয়েছেন সংরতি আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট নুরজাহান বেগম মুক্তা। দেশের জন্য লড়াই করা বীর মুক্তিযোদ্ধার চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়ে নিজেই হাসপাতলে ভর্তি করেন। শহীদ  সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি সার্বণিক খোঁজ রাখছেন। সময় করে নিজেই ছুটে যান হাসপাতালে।

আজ শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) বেলা ১২ দিকে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত আবুল খায়েরে শয্যাপাশে বেশ কিুন অবস্থান করে তার  খোঁজ নেন। এসময় হাসপাতাল কর্তৃপরে সঙ্গে কথা বলে যথাযথ চিকিতসা নিশ্চিতের জন্য অনুরোধ করেন।

খুব দ্রুত শত্রু মোকাবেলায় পারদর্শী ছিলেন বলে ‘উল্কা খায়ের’ নামে ওই এলাকায় পরিচিত ছিলেন এ মুক্তিযোদ্ধা।

সাংসদ নুরজাহান বেগম সাংবাদিকদের বলেন, আমার বাবা মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। ওনারা জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছেন। আজ ওনাদের অসুস্থতায় আমরা বসে থাকতে পানি না। ওনাদের পাশে দাড়ানো আমাদের দায়িত্ব।

বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক সাংসদ মরহুম আবু জাফর মো. মাঈনুদদিনের কন্যা মুক্তা বলেন, ফেসবুকে একটা স্টাটাসের মাধ্যমে বিষয়টি নজরে আসলে ওনাকে দ্রæত চিকিতসা সেবা নিশ্চিতের চেস্টা কির। এসময় আবুল খায়েরের হাতে ৫০ হাজার টাকা তুলে দেন। একই সঙ্গে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নিকট আবেদন জানাবেন বলে উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধাদের আশ্বস্ত করেন।

গত ১৫ নভেম্বর দৈনিক জনকন্ঠে ‘অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়েরকে বা কারা রাস্তায় ফেলে গেছে’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা আহমেদ উল্লাহ (রতন) এর দৃষ্টিগোচর হলে তিনি তাৎনিক শাহরাস্তি ও হাজীগঞ্জ উপজেলার বহু মুক্তিযোদ্ধাকে ফোনে বিষয়টি জানান। কোন সঠিক উত্তর না পাওয়ায় পত্রিকার নিউজ অনুসারে সাভারে সিআরপি হাসপাতালে ফোনে  যোগাযোগ করেন। এ সময় রোগীকে দ্রæত ঢাকার কোন ভাল হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেন সংশ্লিস্ট ডাক্তার। এসময় আহমেদ উল্লাহ উক্ত রোগীর ছবি দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্য ফেসবুকে স্টাটাস দেন। বিষয়টি সাংসদ নুরজাহান বেগম মুক্তার নজরে আসামাত্র তিনি মুক্তিযোদ্ধা আহমেদ উল্লাহকে ফোনকরে দ্রুত ঢাকায় এনে ভর্তির অনুরোধ করেন।

চাঁদপুরের শাহরাস্তি থানার আলীপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের একাত্তরে ২ নং সেক্টরের অধিনায়ক খালেদ মোশাররফের নেতৃত্বে যুদ্ধ করেন। সিলেট ও চাঁদপুর শাহরস্তি থাকার যোদ্ধাদের কমান্ডার ছিলেন। ব্যাক্তিগত জীবনে একা। তার কোনো নিকট আত্মীয় নেই।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে