মডেলিংয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মাদ্রাসাছাত্রীকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ

  ইন্দুরকানী (পিরোজপুর) প্রতিনিধি

০৬ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৫:১৬ | অনলাইন সংস্করণ

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে ফেসবুকে পরিচয়ের মাধ্যমে মডেলিংয়ের প্রলোভনে দেখিয়ে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ করেছে পরিবারের সদস্যরা। ঘটনার পর থেকে ৭ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন ওই ছাত্রী।

ছাত্রীর মা বেবি বেগম গত শুক্রবার ইন্দুরকানী থানায় একটি সাধারন ডায়রি করেছেন। আবিদা সুলতানা পত্তাশী এস. দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ছাত্রী।

স্থানীয় ও ছাত্রীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার মাদ্রাসায় যাওয়ার কথা বলে আবিদা সুলতানা বাড়ি থেকে বের হয়। এসময় অপরিচিত একটি ফোন কলের মাধ্যমে মডেল তারকা বানানোর প্রলোভন দেখানো হলে অপর পাশের মেয়েটির চাওয়া মতো ছাত্রীটি একা চাড়াখালী চৌরাস্তা এলাকায় যায়।

এতিকে মাদ্রাসা ছুটি হলেও আবিদা বাড়ি না ফেরায় তার মা বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেন। ওই রাতে ঢাকা থেকে আবিদা তার নিজের মোবাইলে তার মায়ের সঙ্গে কথা বলে জানায়, মা আমি ভাল আছি। আমি আমার এক বান্ধবীর বাসায় আছি।

এছাড়া আবিদা তার অপর এক বান্ধবী মাদ্রাসা ছাত্রী রেশমার ফোনে মেসেস পাঠিয়ে জানায়, আম্মু যেন কোন চিন্তা না করে আমি এক বান্ধবীর বাসায় আছি, ভাল আছি।
তবে ঢাকায় কোথায় কিভাবে আছে সেটা জানায়নি রেশমাকে।

এরপর থেকে গত ৭ দিন ধরে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে।

ওই ছাত্রীর মা বেবি বেগম জানান, ঢাকায় আমার মেয়ের কোন বান্ধবী নেই। আমার মেয়েকে কে বা কারা মোবাইলে মডেলিংয়ের প্রলোভন দেখিয়ে উঠিয়ে নিয়ে গেছে। আমার মেয়েকে আমি অক্ষত অবস্থায় ফেরত চাই।

ইন্দুরকানী থানার ওসি নাসির উদ্দিন জানান, মাদ্রাসাছাত্রীর নিখোঁজের বিষয় তার মা থানায় সাধারন ডায়রি করেছে। আমরা তার সন্ধানের জন্য চেষ্টা করছি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে