খালেদা জিয়াকে বর্তমান সরকার ভয় পায় : মোশাররফ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:৫১ | আপডেট : ২১ জানুয়ারি ২০১৮, ২২:০৯ | অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বর্তমান সরকার ভয় পায় বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

আজ রোববার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনের সেমিনার হলে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন মোশাররফ।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘বিএনপিকে নিয়ে ষড়যন্ত্র চলছে। আমাদের নেত্রীকে সপ্তাহে তিন দিন কোর্টের বারান্দায় ঘোরাঘুরি করতে হচ্ছে। আমাদের নেতারা বিভিন্ন মামলায় জর্জরিত। ষড়যন্ত্র চলছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বেগম খালেদা জিয়া এবং বিএনপিকে বাইরে রাখার। আবারও ২০১৪ সালের মতো একটি নাটক করার।’

মোশাররফ আরও বলেন, ‘আজকে জিয়াউর রহমানকে, তার পরিবারকে, বেগম খালেদা জিয়াকে বর্তমান সরকার ভয় পায়। কেন ভয় পায়? এই জন্য ভয় পায় আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগের নেতারা যেসব ক্ষেত্রে ব্যর্থ হয়েছিল সেই ক্ষেত্রে জিয়াউর রহমান ও বিএনপি সফল হয়েছিল। এজন্য আওয়ামী লীগ বিএনপিকে ভয় পায়।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘স্বাধীনতা সর্বভৌমত্ব রক্ষা, জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা করার জন্য আগামী সংসদ নির্বাচন আমরা এমন একটি পরিবেশের মধ্যে করবো যেখানে নির্বাচনকালীন একটি নিরপেক্ষ সরকার থাকবে। এই সরকারের ইচ্ছেয় কোনো ভোট হবে না।’

মোশাররফ বলেন, ‘আমাদের বিশ্বাস জনগণ একত্রিত হয়ে নির্বাচনকালীন একটি নিরপেক্ষ সরকার আদায় করবে। সেই নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে, সেই নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত হবে।’

জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বের প্রশংসা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘জিয়াউর রহমান এদেশের গণতন্ত্রকে উদ্ধার করেছেন। এদেশের স্বাধীনতার মূল চেতনা ছিল গণতন্ত্র। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক, যারা আজকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দাবিদার, মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে, তাদের হাতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, গণতন্ত্র নিহত হয়েছে। সেই সময় বাকশাল প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল, আওয়ামী লীগসহ সব দল নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। চারটি সরকারি পত্রিকা ছাড়া সব পত্রিকা বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি ছিল। সেই বাকশালের অবস্থান থেকে জিয়াউর রহমান জাতিকে বহুদলীয় গণতন্ত্র দিয়েছেন। সব দল উন্মুক্ত করে দিয়েছেন।’

মোশাররফ হোসেন আরও বলেন, ‘আজকের যে আওয়ামী লীগ তার অস্তিত্ব ছিল না। আওয়ামী লীগসহ সব দলকে জিয়াউর রহমানকে জীবন দান করেছেন। সব সংবাদপত্র স্বাধীন করে দিয়েছেন। আমাদের জাতিসত্তা নিয়ে যে বিভ্রাট ছিল আজীবনের জন্য তিনি এর সমাধান করে দিয়েছেন। বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ তিনি দিয়ে গেছেন।’

আজকের অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন চলচ্চিত্র পরিচালক ও বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য গাজী মাজহারুল আনোয়ার, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, জাসাসের সাধারণ সম্পাদক নায়ক হেলাল খান, বিএনপির সহআন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক বেবি নাজনিন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাসাসের সভাপতি ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. মামুন আহমেদ।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে