৩ ঘণ্টা আগেই শেষ বিএনপির অনশন

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৩:৩০ | আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৭:৪৯ | অনলাইন সংস্করণ

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে চলা ছয় ঘণ্টার অনশন কর্মসূচি নির্ধারিত সময়ের তিন ঘণ্টা আগেই শেষ হয়েছে।

আজ বুধবার সকাল ১০ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনশন শুরু করে বিএনপি নেতাকর্মীরা। এটি শেষ হওয়ার কথা ছিল বিকেল চারটায়। কিন্তু পুলিশের পক্ষ থেকে বিএনপিকে দুপুর ১টার মধ্যে অনশন কর্মসূচি শেষ করার জন্য সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়। সে অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের আগেই অনশন শেষ করে বিএনপি।

দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে জুস পান করিয়ে অনশন ভঙ্গ করান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ড. এমাজউদ্দীন আহমদ।

অনশন শেষ করার মুহূর্তে ডিবি পুলিশ বিএনপি ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে আটকের চেষ্টা করলে নেতাকর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তবে শেষ পর্যন্ত সোহেল কৌশলে প্রেসক্লাব এলাকা ত্যাগ করতে সক্ষম হন।

এ সময় ৩০ সেকেণ্ডের মতো বক্তব্য রাখেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, ‘আপনারা বলেছেন একটার মধ্যে কর্মসূচি শেষ করতে আমরা সেই অনুযায়ী কাজ করেছি। আপনারা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা শান্ত থাকুন। আমরা অবিলম্বে খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই।’

কর্মসূচিতে বক্তব্য দেওয়ার সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মোশাররফ হোসেন বলেন, খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার করার মধ্য দিয়ে যা করছেন তা হলো আগুন নিয়ে খেলা করা। এ আগুনে আপনাদের হাত পুড়ে যাবে।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেন, ‘একটি ভুয়া মামলায় খালেদা জিয়াকে সাজা দেওয়া হয়েছে। এ রায় আমরা মানি না। এ রায় দিয়ে তাদের উদ্দেশ্য নেত্রীকে দুর্বল করা। তাকে দুর্বল করা অত সহজ নয়। আমরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দিয়ে আমাদের নেত্রী মুক্ত করবো।’

বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ‘বাংলাদেশের বিচারের মানদণ্ড যেখানে দাঁড়িয়েছে আমি সরকারকে অনুরোধ করবো বিচারপতিদের ক্যালকুলেটর দেওয়ার জন্য। দুই কোটি টাকার জন্য যদি খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের জেল হয় তাহলে ক্ষমতাসীনদের হাজার হাজার কোটি টাকার জন্য কত বছরের জেল হবে? দুর্নীতি থেকে তারা কেউ রেহাই পাবে না। তাদের বিচার হবেই।’

এ সময় মির্জা আব্বাস বলেন, ‘দেশে স্বাধীনতা নেই, গণতন্ত্র নেই। যা কিছু হচ্ছে এটি দেশীয় আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র, মানচিত্র খেয়ে ফেলার ষড়যন্ত্র। আমরা দেশের স্বাধীনতা রক্ষা করবোই।’

এদিকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অনশন করছেন দলটির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তার সঙ্গে আছেন বিএনপির সহ দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু ও বেলাল আহমদ।

নয়াপল্টনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও এতে অংশ নিয়েছেন। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে তারা এই কর্মসূচি পালন করছেন।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে