স্ত্রীকে জবাই, স্বামীর আত্মসমর্পণ

  সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

১৪ মার্চ ২০১৮, ২১:০৯ | আপডেট : ১৪ মার্চ ২০১৮, ২১:১২ | অনলাইন সংস্করণ

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামে নিজের স্ত্রীকে জবাই করে হত্যার পর থানায় আত্মসমর্পণ করেন জালাল সানা। ছবি: আমাদের সময়
অভাবের তাড়নায় সাতক্ষীরায় নিজের স্ত্রীকে জবাই করে হত্যার পর থানায় আত্মসমর্পণ করেছেন জালাল সানা (৪৫)নামের এক ব্যক্তি।

আজ  বুধবার ভোরে ঘটনাটি ঘটেছে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামে।

নিহত গৃহবধুর নাম নাছিমা খাতুন (৩৬)। তিনি কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের জালালউদ্দিন সানার স্ত্রী ও একই গ্রামের আনোয়ার মোড়লের মেয়ে।

জালাল ও নাছিমার সংসারে রাবেয়া ও খাদিজা খাতুন নামের দুই সন্তান রয়েছে। তারা জানান, সংসারে অভাবের কারণে তাদের বাবার সঙ্গে মায়ের প্রায়ই ঝগড়া হতো। মঙ্গলবার রাত ১০টার পরে তারা দুই বোন ঘুমিয়ে পড়ার আগে বাবা ও মায়ের মধ্যে ঝগড়া হয়েছে। এরপর রাতে কখন কি ঘটেছে তা তারা বুঝতে পারেননি। সকালেই দেখতে পান তাদের মাকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে ।

কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)সুবীর দত্ত জানান, নাসিমা-জালাল দম্পত্তি দিনমজুরের কাজ করে সংসার নির্বাহ করেন। সম্প্রতি জালাল মানসিকভাবে কিছুটা ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন। তবে স্ত্রীকে হত্যার পর তিনি নিজেই থানায় এসে আত্মসমর্পণ করেছেন।

কালিগঞ্জ থানার (উপপরিদর্শক) এসআই সোহরাব হোসেন জানান, পারিবারিক বিরোধকে কেন্দ্র করে বুধবার ভোরে স্ত্রী নাছিমা খাতুনকে ধারালো দা দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে তার স্বামী রাজমিস্ত্রী জালাল সানা। আত্মসমর্পণের পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে নিয়ে ঘটনাস্থলে থেকে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ব্যাপারে থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে