রাজীব হত্যাকারী বাসচালকদের ফাঁসির দাবি

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৭ এপ্রিল ২০১৮, ১৮:১২ | অনলাইন সংস্করণ

দুই বাসের রেষারেষিতে চাপা পড়ে হাত হারিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অবশেষে প্রাণ হারালো কলেজ ছাত্র রাজীব। এই ঘটনাকে ‘হত্যা’ উল্লেখ করে ঘাতক বাসচালকদের সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবি জানিয়েছে যাত্রী অধিকার আন্দোলন।

আজ মঙ্গলবার সকালে এই দাবিতে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে সংগঠনটি।

যাত্রী অধিকার আন্দোলনের আহ্বায়ক কেফায়েত শাকিল বলেন, রাজধানীর গণপরিবহনগুলোর চালকরা এতটাই বেপরোয়া হয়েছে যে মানুষের প্রাণ এখন তাদের কাছে কিছুই না। তারা রাস্তায় মানুষের জীবন নিয়ে প্রতিযোগিতায় মেতে উঠে। যার জলন্ত প্রমাণ কলেজছাত্র রাজীব হোসাইনের মৃত্যু, গৃহবধূ আয়েশা খাতুনের মেরুদন্ড ভাঙা এবং বেসরকারি চাকরিজীবী রুনা আক্তারের পা থেতলে যাওয়া।

শাকিল আরও বলেন, ‘রাজীব হত্যাকাণ্ডে প্রশাসনেরও গাফিলতি রয়েছে। আমরা বহুদিন ধরে দাবি তুলে আসছি রাজধানীর পরিবহন নৈরাজ্য বন্ধ করতে হবে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট প্রশাসন কার্যকর কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। তখন ব্যবস্থা নিলে আজ রাজীবকে বলি হতে হতো না।’

তিনি আরও বলেন, রাজধানীতে সিটিং সার্ভিসের নামে চালু হওয়া চিটিং সার্ভিস যেভাবে মানুষের পকেট কাটছে সেভাবে কাটছে গলাও। এ পরিবহনগুলো সন্ত্রাসের চেয়েও বড় সন্ত্রাস হয়ে দাঁড়িয়েছে। এদের আজ না রুখলে পরিবহন খাতে যে কঠিন অবস্থার সৃষ্টি হবে এর দায় কর্তৃপক্ষকেই নিতে হবে।’

এ সময় তিনি সিটিং সার্ভিসের নামে চিটিংবাজী বন্ধ না হলে কঠোর আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি দেন।

রাজীব হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড ও পরিবহনব্যবস্থা শৃঙ্খলে আনাসহ ৮ দফা দাবি তুলে ধরে সংগঠনটি।

কর্মসূচিতে আরোও বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের যুগ্ম আহবায়ক মুজাহিদুল ইসলাম, মুখপাত্র মাহমুদুল হাসান শাকুরী, মাঈন উদ্দিন আরিফ, মনিরুল ইসলাম, মাহফুজ বিন শাকুরী, যোবায়ের আহমেদ, হাসান আল বান্না, তামান্না আক্তার প্রমুখ।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে