সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল : প্রধানমন্ত্রী

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৬ মে ২০১৮, ১৩:০২ | আপডেট : ১৬ মে ২০১৮, ১৬:৪৮ | অনলাইন সংস্করণ

দক্ষতার সঙ্গে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল ভূমিকা রেখেছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  তিনি বলেন, ‘আমরা চাই বাংলাদেশ একটি শান্তিপূর্ণ দেশ হিসেবে এই দক্ষিণ এশিয়ায় প্রতিষ্ঠা লাভ করুক। আর সে লক্ষ্য নিয়ে যখন জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ শুধু বাংলাদেশ নয়, সারা বিশ্বেই সমস্যা সৃষ্টি করেছে; ঠিক সেই সময়েই আমাদের পুলিশ বাহিনী অত্যন্ত দক্ষতার সাথে এই জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়েছে।’

আজ বুধবার রাজশাহীর সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে বেলা সাড়ে ১২টায় ৩৫তম শিক্ষানবিশ অতিরিক্ত পুলিশ সুপারদের প্রশিক্ষণ সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এএসপিদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দায়িত্ব পালনের সময় জনগণের অধিকার, মানবাধিকার ও আইনের শাসনকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। সমাজের নারী, শিশু ও প্রবীণদের প্রতি সংবেদনশীল আচরণ করতে হবে।’

জনগণের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন,পুলিশ বাহিনীতে অভ্যন্তরীণ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা, জননিরাপত্তা বিধান, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, সন্ত্রাস ও অপরাধ দমন, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার সমুন্নত রাখার পাশাপাশি বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ বজায় রাখতে পুলিশ সদস্যরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।'

বাংলাদেশের পুলিশ জাতিসংঘে শান্তিরক্ষা মিশনে দক্ষতা ও পেশাদারিত্বের জন্য বহির্বিশ্বে প্রশংসা অর্জন করেছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘নিত্য নতুন অপরাধ দমনে পুলিশ সদস্যদের আরও তৎপর হতে হবে। বিশেষ করে সাইবার অপরাধ নিয়ন্ত্রণে পুলিশকে আরও দক্ষতা অর্জন করতে হবে।’

‘আওয়ামী লীগ সরকার পুনরায় আইজিপি র‌্যাংক ব্যাজ প্রবর্তন করেছে। আমরা আর্মড পুলিশের জন্য ৩০টি ট্রেনিং সেন্টার করে দিয়েছি। এছাড়া আরও চারটি সেন্টার করার কাজ চলছে’ বলেও জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমার জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ সেবা চালু করেছি, যা জনগণকে সেবা দিয়ে সাহায্য করছে। আমরা চাই পুলিশের কাছ থেকে আমাদের জনগণ যথাযথ সেবা পাবে। এজন্য পুলিশকে আধুনিক প্রযুক্তিতে দক্ষ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।’

এর আগে সকাল সাড়ে ১১টার কিছুক্ষণ পর বিমান বাহিনীর একটি বিশেষ হেলিকপ্টারে করে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার পৌঁছান তিনি। পরে সারদায় পুলিশ একাডেমিতে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগতম জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ও পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

এদিকে সারদায় প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে একাডেমীকে বর্ণাঢ্য আয়োজন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ৩৫তম বিসিএসসের নবীন পুলিশ সুপারদের প্রশিক্ষণ সমাপনীর অভিবাদন গ্রহণ করেন। এরপর প্যারেড প্রদর্শন করেন তিনি।

সফরসূচি অনুযায়ী অনুষ্ঠানে প্রশিক্ষণের বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষত্ব অর্জন করায় নির্বাচিত সহকারী পুলিশ সুপারদের পুরস্কৃত করবেন তিনি। অনুষ্ঠান শেষে আজ বিকেলেই রাজশাহী থেকে ঢাকার ফেরার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

এর আগে গত ২২ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী সফরে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওই দিন তিনি রাজশাহীতে ৩৩ উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তি স্থাপন করেন।চলতি মেয়াদে এটি প্রধানমন্ত্রীর তৃতীয়বারের মত রাজশাহী সফর।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে