ঈদের আগেই খালেদা জিয়ার মুক্তির প্রত্যাশা ফখরুলের

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৬ মে ২০১৮, ২১:৪২ | অনলাইন সংস্করণ

পুরোনো ছবি

ঈদের আগেই বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির প্রত্যাশা করছে দলটি। আজ বুধবার রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়াপারসনের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক আলাপচারিতায় দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই প্রত্যাশার কথা জানান।

ফখরুল বলেন, ‘ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) বিরুদ্ধে এখন ছয়টা মামলায় শোন অ্যারেস্ট দেখানো আছে। সেই মামলাগুলো নিয়ে আমরা হাইকোর্টে মুভ করবো। আইনজীবীদের সাথে আমি আলাপ করেছি। আমরা প্রত্যাশা করছি যে, আগামী সাত থেকে ১০ কর্ম দিবসের মধ্যেই ওইসব মামলায় জামিন পাওয়া যাবে।’

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের মামলায় খালেদা জিয়াকে জড়ানোর কোনো ভিত্তি নেই দাবি করে ফখরুল বলেন, ‘এই মামলার সাথে বেগম জিয়ার কোনো সম্পর্কই নাই, উনি জানতেনও না এই ফান্ড আসছে, এই ফান্ড যাচ্ছে। উনার কোনো সই নাই। ট্রাস্টি বোর্ডে যার কোনো সম্পৃক্ততা নেই তাকে কি করে আসামী করা যায়? নিম্ন আদালতে যে বিশ্বাস ভঙ্গের কথা বলা হয়েছে তা কিন্তু প্রমাণ করতে পারেনি। নিম্ন আদালতে রায় দিয়ে দিয়েছেন। আমরা আশাবাদী যে, উচ্চ আদালতে উনি গেট দ্যা রিলিজ।’

আজ বুধবার সকালে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপীল বিভাগের চার সদস্যের বেঞ্চ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দন্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্ট যে জামিন দিয়েছিল, তা বহাল রেখেছেন। পাশাপাশি ওই দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের সাজার রায়ের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার আপিল আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে হাইকোর্টে নিষ্পত্তি করার আদেশ দেন সর্বোচ্চ আদালত।

দুই মাস আগে হাই কোর্টের দেওয়া জামিন আদেশের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ও রাষ্ট্রপক্ষের আপিল শুনানির পর প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগের চার সদস্যের বেঞ্চ বুধবার এই রায় দেয়। তবে অন্য মামলায় গ্রেপ্তার থাকায় এখনই খালেদা জিয়ার মুক্তি মিলছে না বলে আইনজীবীরা জানিয়েছেন।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বিশেষ জজ আদালতে এ মামলার রায়ের পর থেকে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদাকে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে