আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বেআইনি কর্মকাণ্ডে ব্যবহার সমর্থনযোগ্য নয়

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ জুন ২০১৮, ১৭:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত না হয়ে প্রকৃত মাদক ব্যবসায়ী, গড ফাদার ও এর সঙ্গে সম্পৃক্ত সকল ব্যক্তিকে আইনে সেপর্দ করার দাবি জানিয়েছেন সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। তিনি বলেছেন, ‘আমাদের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী একটি সুশৃঙ্খল বাহিনী। এই বাহিনীকে বেআইনি কর্মকাণ্ডে ব্যবহার করা কোনভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়।’

আজ বৃহস্পতিবার সমিতির অডিটোরিয়ামে মাদকমুক্ত অভিযানের নামে ‘বিনা বিচারে হত্যাকাণ্ডে'র প্রতিবাদে সমিতি আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জয়নুল আবেদীন এসব কথা বলেন।

লিখিত বক্তব্যে জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘প্রকাশিত সংবাদের মাধ্যমে আমরা জানতে পেরেছি ইতিমধ্যে প্রায় ২০০ জনের বেশি নাগরিককে বিনা বিচারে বন্দুকযুদ্ধের নামে হত্যা করা হয়েছে। অনেক নিরীহ ব্যক্তিকেও জীবন দিতে হয়েছে। এটা কোন সভ্য দেশ ও জাতির কাছে কাম্য হতে পারে না। অন্যদিকে রাঘব বোয়াল যারা এই মাদক ব্যবসা করে সরকারের ছত্রছায়ায় গডফাদার হয়েছেন তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিগণকে ইতিমধ্যে দেশের বাইরে যেতে সাহায্য করেছে।’

গতকাল বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, ‘দীর্ঘ ৪ মাসের বেশি সময় ধরে কারাবন্দী থেকে খালেদা জিয়ার রোগ আরও জটিল আকার ধারণ করেছে, তৈরি করেছে জীবন শঙ্কা। এ অবস্থায় প্রচলিত আইনের ধারাবাহিকতায় দ্রুত মুক্তির সুযোগ না থাকায় প্যারোলই একমাত্র সমাধান।’

এ নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,‘প্যারোলে মুক্তি নিয়ে খন্দকার মাহবুব হোসেন যে বক্তব্য দিয়েছেন এটা ওনার ব্যক্তিগত মতামত। আমাদের সঙ্গে তিনি আলোচনা করেননি।’

তবে সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, বেগম জিয়া খুবই অসুস্থ। তার চিকিৎসার জন্য খন্দকার মাহবুব হোসেন সম্ভবত এ দাবি করেছেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা দেওয়ার দাবি জানিয়ে সমিতির সভাপতি  বলেন, ‘দেশের একজন নাগরিক এবং সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার চিকিৎসা পাওয়ার অধিকার রয়েছে। সেই চিকিৎসা তিনি যেভাবে চাইবেন সেইভাবেই সেই চিকিৎসা সেবা দেওয়া উচিত। আমরা আইনজীবী হিসেবে মনে করি আইনের দৃষ্টিতে তার সে অধিকার রয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে