রাজধানীর কর্মসূচিতে স্বতঃস্ফূর্ততা ছিল না

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২২ জুন ২০১৮, ০০:১৫ | আপডেট : ২২ জুন ২০১৮, ০০:৫৮ | অনলাইন সংস্করণ

কারাবন্দি খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে বিভিন্ন জেলা ও মহানগরে কর্মসূচি পালনের খবর পাওয়া গেলেও ঢাকার রাজপথে স্বতঃস্ফুর্ত কোনো কর্মসূচি করতে পারেনি বিএনপি।

থানা ও ওয়ার্ড কমিটি গঠনের পর দলটির প্রত্যাশা ছিল নতুন কমিটি সব বাধা অতিক্রম করে ঢাকায় যেকোনো কর্মসূচি করবে। কিন্তু এই কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপির নেতাকর্মীরা দুইভাগে বিভক্ত হওয়ায় দলটির প্রত্যাশা পূরণ হয়নি।

পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী বৃহস্পতিবার বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি ভাটারা থানার একশ ফিট সড়ক ও দক্ষিণ বিএনপি পুরান ঢাকার জজ কোর্ট এলাকায় নেতাকর্মীদের জড়ো হতে বার্তা পাঠায়। কিন্তু পুলিশি বাধার কারণে নির্ধারিত জায়গার পরিবর্তে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সংলগ্ন সড়কে মিছিল করেছে বলে জানান দক্ষিণের নেতাকর্মীরা।

ঢাকা মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশারের নেতৃত্বে এই মিছিল হলেও মহানগরের সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেলকে সেখানে দেখা যায়নি। 
বিএনপির মহানগরের দক্ষিণের নেতারা জানান, পুরান ঢাকার জজ কোর্ট এলাকায় বিক্ষোভ মিছিলের কথা থাকলে তা তারা করতে পারেননি। বুধবার সকাল থেকেই জজ কোর্ট এলাকায় সাজোয়া যান ও জলকামান নিয়ে আগেই অবস্থান নেয় পুলিশ। পরে জায়গা পরিবর্তন করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের গেট থেকে মিছিল বের করে দক্ষিনের নেতাকর্মীরা। মিছিলটি বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে চানখারপুল মোড়ে এসে শেষ হয়। মিছিল শেষে কামরাঙ্গীচর থানা বিএনপির নেতা রহমত উল্লাহ, তাজুল ইসলাম সহ আরও কয়েকজনকে আটক করে পুলিশ।

উত্তরের বিএনপি নেতারা জানান, দুপুরে উত্তর বিএনপি রাজধানীর ভাটারা থানার সামনে থেকে মিছিল বের করে। মিছিলটি কিছুদুর গিয়ে পুলিশি বাধার মুখে পরে। আটক করা হয় পাঁচ নেতাকর্মীকে। উত্তরের সাধারণ সম্পাদক আহসানউল্লাহ হাসান, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, কোষাধ্যক্ষ আতাউর রহমান, দপ্তর সম্পাদক এবিএমএ রাজ্জাকসহ ২৫ থেকে ৩০ জন নেতাকর্মী এই বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেন। তবে উত্তরের নব গঠিত থানা ও ওয়ার্ড কমিটির অধিকাংশ নেতাকেই মিছিলে দেখা যায়নি।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে