‘বাবাকে চরিত্র ভালো করতে বলো, নচেৎ আমি আত্মহত্যা করব’

  চকরিয়া প্রতিনিধি

১৩ জুলাই ২০১৮, ১৬:২২ | আপডেট : ১৩ জুলাই ২০১৮, ২০:৩৭ | অনলাইন সংস্করণ

মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ব্যক্তি। ছবি : আমাদের সময়

স্বামীর বিরুদ্ধে কক্সবাজারের চকরিয়া থানায় মামলা করেছেন এক গৃহবধূ। তার অভিযোগ, মেয়েকে দুবার ধর্ষণ করেছেন তার স্বামী। এই অভিযোগ পেয়ে পুলিশ গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ওই ব্যক্তিকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে।

মামলার অভিযোগপত্রে ওই গৃহবধূ উল্লেখ করেন, নিজের মেয়েকে তার স্বামী দুবার ধর্ষণ করেছে। কিন্তু নিজের ও পারিবারিক সম্মান নষ্টের ভয়ে প্রথমে কাউকে কিছু জানায়নি সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই ১২ বছরের কিশোরী। এক পর্যায়ে ভবিষ্যতে এমন আরও ঘটনা ঘটতে পারে-এ আশঙ্কায় সেই কিশোরী মাকে সব খুলে বলে। 

মাকে ওই কিশোরী বলে, ‘বাবাকে চরিত্র ভালো করতে বলো, নচেৎ আমি আত্মহত্যা করব।’ মেয়ের মুখে স্বামী সম্পর্কে এমন কথা শোনার পর ওই গৃহবধূর সন্দেহ হয়। তিনি গত বুধবার এ বিষয়ে মেয়ের কাছে বিস্তারিত জানতে চান। তখন কিশোরী মেয়ে তাকে কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানায়, গত ৩ জুলাই রাত ৯টার দিকে বাড়ির অন্যরা বেড়াতে গেলে এবং ৫ জুলাই সকালে তিনি (মা) বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থায় (এনজিও) ঋণের টাকা দিতে গেলে দুদফা মেয়ের সঙ্গে বাবা খারাপ কাজ করে। 

মামলায় ওই কিশোরীর মা আরও উল্লেখ করেন, মেয়ের মুখে এসব শুনে তিনি স্বামীকে জিজ্ঞেস করেন। কিন্তু স্বামীকে জানালে ওই গৃহবধূকে হুমকি দেন তিনি। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বিষয়টি জানান ওই কিশোরীর মা। তারাই বিষয়টি পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ গতকাল রাতে অভিযান চালিয়ে ওই কিশোরীর বাবাকে গ্রেপ্তার করেন।  

চকরিয়া থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইয়াসির আরাফাত বলেন, জঘন্য ঘটনাটির বিষয়ে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষা করাতে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে। 

এ বিষয়ে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, গ্রেপ্তার হওয়া কিশোরীর বাবাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তিনি পুলিশকে বলেন, ‘আমার মাথায় শয়তান ঢুকেছিল, তাই এ অপকর্ম করেছি।’ তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে