আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে আটক ছাত্রলীগ নেতা, তারপর...

  কলারোয়া প্রতিনিধি

২১ জুলাই ২০১৮, ২০:৪৯ | অনলাইন সংস্করণ

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালামকে এক গৃহবধূর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় থাকার অভিযোগে আটক ও গণধোলাই দিয়েছেন স্থানীয়রা।  গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার পৌর সদরের শ্রীপতিপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আবদুস সালাম উপজেলার জয়নগর ইউনিয়নের ক্ষেত্রপাড়া গ্রামের আবদুর রহমান মোড়লের ছেলে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় কয়েকজন জানান, আবদুস সালামের সঙ্গে এক গৃহবধুর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গৃহবধুর স্বামী বাসায় না থাকলে প্রায়ই তার বাড়িতে যেতেন সালাম। একইভাবে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে তিনি ওই গৃহবধুর বাড়িতে যান।

পরে এলাকাবাসী বিষয়টি দেখতে পেয়ে আপত্তিকর অবস্থায় ওই গৃহবধুর সঙ্গে সালামকে আটক করে এবং গণপিটুনি দেয়।

বিষয়টি জানাজানি হলে উপজেলা ছাত্রলীগের এক নেতা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সালামকে মুক্ত করে নিয়ে যায়।

এলাকাবাসী আরও জানায়, এর আগেও সালামের বিরুদ্ধে একাধিক নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়া একই অভিযোগে এর আগে তাকে কলারোয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল।

এ বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগ নেতা সালামের যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু সাঈদ বলেন, 'শুক্রবার আমি এলাকার বাইরে ছিলাম। রাতে কলারোয়ায় এসে এমন একটি বিষয় শুনছি। পরে বিষয়টি জেলা ছাত্রলীগ নেতাদের অবহিত করা হয়েছে।'

এ বিষয়ে সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমান জানান, 'ছাত্রলীগের উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের কাছ থেকে তিনি ঘটনাটি শুনেছেন। সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয় এমন কাজের সঙ্গে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে।'

 

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে