প্রবাসীর স্ত্রীকে জনসম্মুখে নির্যাতন (ভিডিও)

  দাউদকান্দি প্রতিনিধি

১১ আগস্ট ২০১৮, ২১:৪২ | অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলায় পরকীয়ার অভিযোগ এনে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে নির্যাতন করা হয়েছে। পরে ওই ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। গত ৩১ জুলাই উপজেলার বারপাড়া ইউনিয়নে ঘটনাটি ঘটেছে।

এ ঘটনায় পরদিন ১ আগস্ট ভুক্তভোগী ওই নারীর বোন বাদী হয়ে পাঁচজনকে আসামী করে দাউদকান্দি মডেল থানায় একটি মামলা করেন।

পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে সাইফুল ও বাবুল নামে ওই প্রবাসীর দুই ভাইকে গ্রেপ্তার করে। মামলার অন্য আসামীরা হলেন- নির্যাতিতার প্রবাসী স্বামীর ভাই মিন্টু, মোস্তাক ও নির্যাতিতার জা শিল্পী।

এলাকাবাসী কয়েকজন অভিযোগ করেন, গত ৩১ জুলাই রাত ১০টার দিকে পরকীয়ার অভিযোগে পাশের গ্রামের এক ব্যক্তিকে ডেকে এনে জোর করে ওই নারীর ঘরে আটকে রাখা হয়। আটক দুজনের ওপর রাতভর দফায় দফায় নির্যাতন চালান আসামীরা।

পরে একই অভিযোগে ১ আগস্ট সকালে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান মনির হোসেন তালুকদারের উপস্থিতিতে গ্রাম্য সালিশের আয়োজন করা হয়। সালিশ চলাকালে আসামী মিন্টুর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ওই নারীর ওপর নির্যাতন করা হয়। এ ছাড়া তার সঙ্গে রাতভর আটকে রাখা ওই ব্যক্তিকেও বেধড়ক পেটানো হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বৈঠকে উপস্থিত বারপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মনির হোসেন তালুকদার বলেন, ‘বিষয়টি তাদের পারিবারিক ষড়যন্ত্রের অংশ।’

নির্যাতিতা নারীর স্বামীর চার ভাই ও ভাবী মিলে কাজটি করেছে বলে দাবি করেন মনির।

মনির হোসেন আরও বলেন, ‘সকালে বৈঠক শুরুর পর হঠাৎ করেই এক ভাই এসে ওই নারীরে মারধরের নির্দেশ দেন। পরে আমার ইউনিয়নের তিন জন সদস্য ও আশেপাশের লোকজন মিলে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পাঠাই এবং আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেই।’

দাউদকান্দি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘এ ঘটনায় দুই আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।' 

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে