শেখ হাসিনার আমল উন্নয়নের দৃষ্টান্ত : শাহাজান খান

  বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি

১৭ আগস্ট ২০১৮, ১৮:১৫ | আপডেট : ১৭ আগস্ট ২০১৮, ১৯:৪৫ | অনলাইন সংস্করণ

পুরোনো ছবি

শেখ হাসিনার শাসন আমল দেশকে কীভাবে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হয় তার একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বলে মন্তব্য করেছেন নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাহাজান খান।

আজ শুক্রবার দুপুরে বেনাপোল স্থলবন্দর প্যাছেনঞ্জার টার্মিনাল অডিটোরিয়ামে স্থলবন্দরের উন্নয়ন ও পরিচালনায় গতিশীলতা আনার উদ্দেশ্যে গঠিত উপদেষ্টা কমিটির নবম সভায় নৌমন্ত্রী এই মন্তব্য করেন।

শাহাজান খান বলেন, ‘১৯৯১ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন ক্ষমতায় ছিলেন তখন দেশে ১২টি গেজেটভুক্ত স্থলবন্দর ছিল। তার মধ্যে মাত্র দুটি বন্দর চালু ছিল। তার একটি ছিল বেনাপোল বন্দর অন্যটি সোনা মসজিদ। আজ দেশে ২৩টি স্থলবন্দর গেজেট ভুক্ত। এর মধ্যে ১২টি চালু হয়েছে। অন্য বন্দরগুলো খুব দ্রুত চালু হবে।’

নৌমন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার আগে বেনাপোল স্থলবন্দরে মাত্র ২৬ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে। শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার পর বেনাপোল স্থলবন্দর থেকে ১১১ কোটি টাকা লাভ হয়েছে। চট্টগ্রাম বন্দরে রিজার্ভ ছিল মাত্র সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা। বর্তমানে চট্টগ্রাম বন্দরের রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ১১ হাজার কোটি টাকা। মংলা বন্দরের লোকসান ছিল ১১ কোটি টাকা আজ সেখানে ৭৫ কোটি টাকা লাভ দাঁড়িয়েছে।’

শাহাজান খান আরও বলেন, ‘বেনাপোল বন্দরকে আরও উন্নত করতে এবং ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণ করতে ১৭৫ একর জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলে সব সময় দেশের উন্নয়ন হয়।’

উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে ব্যবসায়ী নেতারা সুষ্ঠুভাবে বাণিজ্য পরিচালনায় বন্দর এলাকায় জমি অধিগ্রহণ ও সুনিদিষ্ট অভিযোগ ছাড়া রাস্তায় রাস্তায় আমদানি পণ্যবাহী ট্রাক তল্লাশীর নামে অহেতুক বর্ডার গার্ডের (বিজিবি) হয়রানির অভিযোগ তোলেন। একই অভিযোগ ছিল কাস্টমস কর্মকর্তাদেরও।

সভা শেষে মন্ত্রী বেনাপোল বন্দরে অধিগ্রহণকৃত জমির মধ্যে ২৬ একর জমির মূল্য বাবদ জেলা প্রশাসকের কাছে চেক প্রদান করেন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন— নৌপরিবহন সচিব (বাস্থবক) আব্দুস সামাদ, যুগ্ম সচিব হাবিবুর রহামান, বাংলাদেশ স্থল বন্দরের চেয়ারম্যান তপন কুমার চক্রবর্তী, বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন, খুলনা বিভাগীয় পুলিশের ডেপুটি ইন্সপেক্টর মো. নাহিদ হোসেন, জেলা প্রশাসক আশরাফ উদ্দিন প্রমুখ।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে