ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট

বঙ্গবন্ধুর খুনি শাহরিয়ার রশিদের জামাতা রিমান্ডে

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৮:০৭ | আপডেট : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২৩:২৩ | অনলাইন সংস্করণ

স্ত্রীর সঙ্গে ফুয়াদ জামান
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত খুনি লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব.) সুলতান শাহরিয়ার রশিদ খানের জামাতা ফুয়াদ জামানকে (৪৩) গ্রেপ্তার করেছে সিসিটিসি (কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সাইবার ক্রাইম)। গতকাল বুধবার রাত ১০টার দিকে হাতিরঝিল এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার ফুয়াদ জামানকে আদালতে হাজির করে ধানমন্ডি থানার তথ্য-প্রযুক্তি আইনে দায়ের করা একটি মামলায় তার ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম (এসিএমএম) কায়সারুল ইসলাম ফুয়াদের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

সিটিটিসির সাইবার ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নাজমুল ইসলাম জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে কটূক্তি এবং বঙ্গবন্ধুর খুনিদের প্রশংসা করেছিলেন ফুয়াদ জামান। উসকানিমূলক এই পোস্টে ক্ষুব্ধ হয়ে ধানমন্ডি থানার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে একটি মামলা দায়ের করেন বঙ্গবন্ধু পরিষদ, আহসান উল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য নাজমুল হাসান পিয়াস নামে এক ব্যক্তি।

গত ২৩ আগষ্ট দায়ের করা ওই মামলায় অভিযুক্ত ফুয়াদকে বুধবার রাতে গ্রেপ্তারকালে তার ফেসবুক আইডি ও গ্রুপ এবং মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, ফুয়াদ জামানের স্ত্রী শেহনাজ রশিদ খান বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত আসামি লে. কর্নেল (অব.) সুলতান শাহরিয়ার রশিদ খানের মেয়ে। ফুয়াদ তার শ্বশুরের মৃত্যুর বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি। তাই তিনি নিজের ফেসবুক আইডি থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নৃশংস হত্যাকাণ্ড নিয়ে কটূক্তি করেন।

গত ১৫ আগস্ট সকাল ৭টা ১৭ মিনিটে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের অপরাধের পক্ষে সাফাই গেয়ে খুনিদের প্রশংসা করে ও আত্মার মাগফেরাত কামনা করে ফেসবুকে পোস্ট দেন ফুয়াদ। পোস্টে তিনি বঙ্গবন্ধুকে স্বৈরাচার বলে তার হত্যাকে ভালো কাজ বলে আখ্যা দেন।

শাহরিয়ার রশিদের মেয়ে শেহনাজ রশিদ ও তার জামাই ফুয়াদ জামানকে ২০১১ সালের ৬ আগস্ট ইয়াবা বিক্রির টাকাসহ ধানমন্ডি থেকে একবার গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এ ছাড়া ২০০৯ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর সাংসদ ফজলে নূর তাপসকে বোমা মেরে হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি হিসেবে শাহরিয়ার রশিদের আরেক মেয়ে মেহনাজ রশিদকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ।

২০১০ সালের ২৭ জানুয়ারি পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে বঙ্গবন্ধুর খুনি হিসেবে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সুলতান শাহরিয়ার রশিদের ফাঁসি কার্যকর করা হয়। তার গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলার গোপীনাথপুরে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে