মাদ্রাসার শিক্ষকের ‘পিটুনিতে’ প্রাণ গেল ছাত্রের

  নওগাঁ প্রতিনিধি

২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:০৮ | অনলাইন সংস্করণ

প্রতীকী ছবি

নওগাঁর মান্দা উপজেলার দোসতি দাখিল মাদ্রাসার দুই শিক্ষকের বেধড়ক পিটুনিতে জয়নাল আবেদিন (১৩) নামের সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্র নিহত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে মারা যায় জয়নাল।

এই ঘটনায় অভিযুক্ত দুই শিক্ষক হলেন— হারুন উর রশিদ ও আব্দুর রাজ্জাক। এই ঘটনার পর থেকে তারা পলাতক আছেন। এ ঘটনায় পুলিশ দোসতি দাখিল মাদ্রাসার সুপার বেনী ইয়ামিনকে আজ শুক্রবার সকালে গ্রেপ্তার করেছে।

জয়নালের বাবা জামিদুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার মাদ্রাসা চলাকালে উশৃঙ্খল আচরণ করার অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক হারুন উর রশিদ ও আব্দুর রাজ্জাক সপ্তম শ্রেণির ছাত্র জয়নাল আবেদিনকে বেদম পেটায়। এ সময় সে অসুস্থ হয়ে পড়লে তড়িঘড়ি করে তাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

অসুস্থ অবস্থায় বাড়িতে গিয়ে জয়নাল আবেদিনের অবস্থার অবনতি হলে তাকে প্রথমে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। সেখানেও তার অবস্থার অবনতি হলে মঙ্গলবার রাতেই তাকে রামেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। রামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর মারা যায় জয়নাল আবেদিন।

মান্দা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মাহবুর আলম জানান, জয়নাল আবেদিন নামের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যাওয়া পর তার পিতা-মাতাসহ আত্মীয়-স্বজনরা ময়নাতদন্ত না করেই গোপনে লাশ নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতেই বাড়ি চলে আসে এবং গোপনে দাফনের চেষ্টা করে। খবর পেয়ে মান্দা উপজেলার বৈলশিং পানাতাপাড়ার বাসিন্দা জামিদুল ইসলামের বাড়ি থেকে রাতেই পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

আজ শুক্রবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য নিহত জয়নাল আবেদিনের লাশ নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

মাহবুর আলম আরও জানান, এ ঘটনায় নিহত স্কুলছাত্রের পিতা জামিদুল ইসলাম বাদী হয়ে মাদরাসার সুপার বেনী ইয়ামিন, শিক্ষক হারুন উর রশিদ ও শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাককে আসামি করে বৃহস্পতিবার রাতে মান্দা থানায় একটি মামলা দায়ের করে। এ মামলায় আজ শুক্রবার সকালে মাদরাসা সুপার বেনী ইয়ামিনকে তার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অপর দুই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করার জন্য অভিযান অব্যাহত আছে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে