শিশুকে বৃদ্ধের ধর্ষণ, সালিশে গলায় জুতার মালা দিয়ে ধামাচাপার চেষ্টা

  নিজস্ব প্রতিবেদক, কুড়িগ্রাম

২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:২১ | আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২০:১৩ | অনলাইন সংস্করণ

রাস্তা থেকে ঘরে ডেকে নিয়ে চতুর্থ শ্রেণির এক শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে জোব্বার আলী (৬০) নামে এক বৃদ্ধের বিরুদ্ধে। ঘটনার পরের দিন বিষয়টি ধামাচাপা দিতে সালিশি বৈঠক করে স্থানীয় মাতব্বররা। বৈঠকে জুরি বোর্ডের সিদ্ধান্তে জোব্বার আলীর গলায় জুতার মালা পরানো হয়। গত বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।

গতকাল রোববার সন্ধ্যায় ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে রৌমারী থানায় এ ব্যাপারে অভিযোগ দায়ের করেছেন। এর পরই মাতব্বর নওশাদ আলীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে রাস্তা থেকে ওই শিক্ষার্থীকে ডেকে নিজ ঘরে নিয়ে মুখ চেপে ধর্ষণ করে জোব্বার আলী। পরে অচেতন অবস্থায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় ওই বৃদ্ধ।

বিষয়টি জানাজানি হলে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য শুক্রবার রাতে ওই গ্রামের স্থানীয় মাতব্বর ওসমান গনীকে সভাপতি করে সালিশ বৈঠক করে একটি প্রভাবশালী মহল। আর বৈঠকে জুরি বোর্ড গঠন করে ধর্ষকের কাছের কিছু আত্মীয়। পরে বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, জোব্বার আলীকে জুতার মালা গলায় দেওয়ার নাটক সাজানো হয়।

ধর্ষণের শিকার শিশুটির বাবা বলেন, ‌‘আমি সিদ্ধান্ত না মেনে থানায় গিয়ে অভিযোগ দিতে চাইলে মাতব্বরা আমাকে নানা হুমকি দেয়। পর রোববার সন্ধ্যায় পালিয়ে এসে থানায় অভিযোগ দায়ের করি।’

বিষয়টি নিশ্চিত করে রৌমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এ ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। ধামাচাপা দেওয়ার মূলহোতা মাতব্বর নওশাদকে আটক করা হয়েছে। তবে ধর্ষক পালিয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে