স্ত্রী যেতেন বাপের বাড়ি, মেয়েকে করতেন ‘ধর্ষণ’

  নরসিংদী প্রতিনিধি

০৭ নভেম্বর ২০১৮, ২০:৩১ | আপডেট : ০৭ নভেম্বর ২০১৮, ২১:০৭ | অনলাইন সংস্করণ

নরসিংদীর মাধবদীতে নিজের সন্তানকে ধর্ষণের অভিযোগে বাবাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার ভোরে মাধবদীর কাঠালিয়া ইউনিয়নের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত রতন মিয়া (৪৫) ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গ্রেপ্তাকৃত রতন মাদকাশক্ত। তার স্ত্রী মানসিক প্রতিবন্ধী। মাদক সেবন করাকে কেন্দ্র করে স্ত্রীর সঙ্গে রতনের প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ হতো। এসবের জের ধরে স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে প্রায় সময়ই বাপের বাড়িতে চলে যেতেন। এই সুযোগে রতন তার ১৫ বছরের মেয়েকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করতেন। একই সঙ্গে কাউকে জানালে গলাটিপে মেরে ফেলবে বলেও মেয়েকে হুমকি দিতেন।

দিনের পর দিন এমন নির্যাতন সইতে না পেরে তার খালার কাছে সব খুলে বলেন ভুক্তভোগী শিশু। পরে তার খালা শরিফা বেগম নারী নির্যাতন দমন আইনে মাধবদী থানায় রতন মিয়ার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার ভোরে মাধবদী থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেন।

মাদবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু তাহের দেওয়ান বলেন, ‘অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রতন মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে ধর্ষণের কথা অকপটে স্বীকার করেছেন।’ 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে