খালেদাকে কারাগারে ফেরত পাঠানোর পর আর কী আলোচনা, প্রশ্ন জয়নুল আবেদীনের

  নিজস্ব প্রতিবেদক

০৮ নভেম্বর ২০১৮, ২১:৪৫ | অনলাইন সংস্করণ

পুরোনো ছবি
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসা না করিয়ে সরকার তাকে কারাগারে ফেরত পাঠানোয় নির্বাচন নিয়ে আর কী আলোচনা হতে পারে বলে প্রশ্ন তুলেছেন সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়াকে পুনরায় পুরাতন জেলখানায় স্থানান্তরের পর আজ বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির ব্যানারে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে জয়নুল আবেদন এ প্রশ্ন তোলেন।

সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি বলেন, ‘বিনা চিকিৎসায় সরকার খালেদা জিয়াকে মেরে ফেলতে চাইছে। এতে আইনজীবীদের এবং দেশের সাধারণ মানুষের মনে শঙ্কা ও উৎকণ্ঠার সৃষ্টি হয়েছে। এ অবস্থায় জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কি না বা আদৌ নির্বাচন হবে কি না, তা নিয়ে শঙ্কা রয়েছে।’

জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংলাপকালে বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সংলাপ শেষে বলা হয়েছে, তফসিল হলেও আলোচনা চলবে। খালেদা জিয়ার চিকিৎসা না করিয়ে সরকার তাকে কারাগারে পাঠানোয় এবং এভাবে গণগ্রেপ্তার অব্যাহত রাখায় আর কি আলোচনা হবে?’

খালেদা জিয়ার আইনজীবী প্যানেলের সদস্য জয়নুল আবেদীন আরও বলেন, ‘গত ৬ নভেম্বর খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার জন্য আমরা আবেদন করেছিলাম। কিন্তু আজ পর্যন্ত সে আবেদন তারা গ্রহণ করেনি। আজ সকালে খবর পেলাম, মাত্র আধা ঘণ্টার নোটিশে তাকে ব্যাগ অ্যান্ড ব্যাগেজসহ আদালতকে কিছুই না জানিয়ে কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। আমরা তার আইনজীবী। আমাদেরকে বিষয়টি জানানো উচিত ছিল। এটা দুঃখজনক। এতে বিচার বিভাগের আদেশ অবজ্ঞা করা হয়েছে। সরকার এ আদেশ অবজ্ঞা করে খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠিয়েছে।’

খালেদা জিয়াকে আবার হাসপাতালে ফিরিয়ে নিতে সরকারকে অনুরোধ জানিয়ে জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘তার চিকিৎসার জন্য গঠিত বোর্ড না বলা পর্যন্ত তাকে হাসপাতালে রাখার অনুরোধ করছি। আমরা এজন্যই একটি স্বাধীন ও ইউনাইটেড হাসপাতালে তার চিকিৎসার আবেদন জানিয়েছিলাম। প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করছি খালেদা জিয়ার পছন্দনীয় চিকিৎসকদের দিয়ে তার চিকিৎসা করানোর। আর যেহেতু রাজনৈতিক মামলায় তাকে সাজা দেওয়া হয়েছে তাই খালেদা জিয়ার মুক্তি চাইছি।’

সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকনের সঞ্চলানায় সংবাদ সম্মেলনে সমিতির নেতারা ও বিএনপিপন্থী 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে