sara

আদালতকে খালেদা জিয়া

সময় না দিলে বলে দিন, আমরা নির্বাচন করতে পারব না

  আদালত প্রতিবেদক

১৪ নভেম্বর ২০১৮, ১৪:২৩ | আপডেট : ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ২০:৫২ | অনলাইন সংস্করণ

পুরোনো ছবি
নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত নাইকো দুর্নীতি মামলায় আদালতের কাছে সময় প্রার্থনা করেছেন কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তিনি আদালতকে বলেন, ‘যদি আমাদের সময় না দেন তাহলে আদেশ দিয়ে বলে দিন, আমরা নির্বাচন করতে পারব না।’

আজ বুধবার এ মামলায় দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষে দুদক প্রসিকিউটর মোশাররফ হোসেন কাজলের সময়ের আবেদনের বিরোধিতার পরিপ্রেক্ষিতে খালেদা জিয়া আদালতের কাছে সময় প্রার্থণা করেন।

খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমাদের জেল ও আদালতে আটকে রেখে আরেক দলকে নির্বাচনের প্রচারণার সুযোগ দিয়ে নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হতে পারে না। তাই নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত  আদালতের কাছে সময় প্রার্থনা করছি।’

বিচারকের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, ‘যদি আমাদের সময় না দেন তাহলে আদেশ দিয়ে বলে দিন, আমরা নির্বাচন করতে পারব না।’

শুনানি শেষে আগামী ৩ জানুয়ারি মামলার পরবর্তী দিন ধার্য করেন আদালত।    

এর আগে বেলা ১১টা ৫৮ মিনিটে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত ঢাকার ৯নং বিশেষ জজ মাহমুদুল কবিরের আদালতে সাবেক এ প্রধানমন্ত্রীকে হুইল চেয়ারে করে হাজির করা হয়। শুরুতেই আদালতের পরিবেশ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি।

২০০৮ সালের ৫ মে এ মামলায় খালেদা জিয়াসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক এস এম সাহেদুর রহমান। অভিযোগপত্রে প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭ কোটি টাকার রাষ্ট্রীয় ক্ষতির অভিযোগ আনা হয়। নাইকো ছাড়াও গ্যাটকো ও বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলার বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে তা বাতিলের আবেদন জানিয়ে পৃথক পৃথক রিট করেছিলেন খালেদা জিয়া।

এসব রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে দুর্নীতি মামলাগুলোর কার্যক্রম স্থগিত ও রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। কয়েক বছর ধরে স্থগিত থাকার পর মামলাগুলো সচলের উদ্যোগ নিয়ে রুল নিষ্পত্তির আবেদন জানায় দুদক। পরে গত বছর আলাদা শুনানি শেষে মামলা তিনটি সচলের রায় দেন হাইকোর্ট।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দুদকের দায়ের করা দুই মামলায় ১০ ও ৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন। আপিলে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড বেড়ে ১০ বছর এবং জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিশেষ আদালতে ৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন তিনি। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার পর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে অবস্থিত পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়াকে বন্দী রাখা হয়।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে