sara

এতগুলো টেলিভিশন দেখেন, এটাও কিন্তু আমার দেওয়া : প্রধানমন্ত্রী

  নিজস্ব প্রতিবদক

২১ নভেম্বর ২০১৮, ১৭:২৮ | অনলাইন সংস্করণ

পুরোনো ছবি

বেসরকারি খাতকে উন্মুক্ত করে সরকার নতুন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করেছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘কর্মসংস্থানের জন্য বেসরকারি খাতকে আমরা উন্মুক্ত করে দিয়েছি। এই যে আজকে এতগুলো টেলিভিশন দেখেন, এটাও কিন্তু আমার দেওয়া। ৯৬ সাল থেকে আমি শুরু করেছি। আমাদের বেসরকারি খাতে টেলিভিশন উন্মুক্ত করাতে আজকে হাজার হাজার, লক্ষ লক্ষ মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে।’

আজ বুধবার সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে ঢাকা সেনানিবাসের আর্মি মাল্টিপারপাস কমপ্লেক্সে খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা এবং তাদের উত্তরাধিকারীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা বিনিয়োগ বৃদ্ধির উদ্যোগ নিয়েছি। ১০০টা অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলেছি। প্রতিটি এলাকায় বিনিয়োগ যাতে হয়, কর্মসংস্থান যাতে হয়, রপ্তানি বৃদ্ধি পায়, আমাদের দেশে বাজার সৃষ্টি হয় সে ব্যবস্থা নিয়েছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজকের বাংলাদেশ, ডিজিটাল বাংলাদেশ। সারা বাংলাদেশেই আমরা ব্রডব্র্যান্ড চালু করতে সক্ষম হয়েছি। প্রায় ৯০ ভাগ আমরা সম্পন্ন করেছি। ইন্টানরেট সার্ভিস সমগ্র বাংলাদেশে আছে। ১৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন থেকে যাত্রা শুরু করে আজকে ২০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষমতা অর্জন করেছি। ৯৩ ভাগ মানুষের জীবনে আমরা বিদ্যুৎ দিতে পেরেছি এবং আমাদের লক্ষ্য প্রতি ঘরে ঘরে আমরা আলো জ্বালব, বিদ্যুৎ দেব।রাস্তাঘাট, পুল-ব্রিজ ব্যাপকভাবে উন্নত করেছি।’

সরকারপ্রধান বলেন, ‘নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু নির্মাণ কাজ আজকে দৃশ্যমান। নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্ট আমরা তৈরি করছি। বাস্তবে আজ বাংলাদেশ ডিজিটাল, সকলের হাতে হাতে মোবাইল, এটাও কিন্তু আামদেরই দেওয়া ছিল। আমরা স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করেছি, মহাকাশ জয় করেছি।’

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘আমাদের দেশে যে সমস্যাগুলি ছিল একে একে সেগুলি প্রায় সবই সমাধান করতে আমরা সক্ষম হয়েছি। ৬৮ বছর পড়ে থাকা আমাদের যে ল্যান্ড বাউন্ডারি (সীমানা) সমস্যা সেই সমস্যার আমরা সমাধান করেছি। আমাদের মেরিটাইম বাউন্ডারির (সমুদ্র সীমা) সমস্যা ছিল সেটার সমাধান করেছি। সকলের সাথে বন্ধুত্ব কারও সাথে বৈরিতা নয়।’

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে