সমৃদ্ধ শোষণমুক্ত স্বচ্ছ বাংলাদেশ গড়তে শুদ্ধাচার : তথ্যসচিব

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:৩২ | অনলাইন সংস্করণ

পুরোনো ছবি

সমৃদ্ধ, শোষণমুক্ত ও স্বচ্ছ বাংলাদেশ গড়তে শুদ্ধাচারের বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যসচিব আবদুল মালেক। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে সচিবালয় তথ্য অধিপ্তরের সাত কর্মকর্তা-কর্মচারির হাতে চলতি বছরের শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এই মন্তব্য করেন।

প্রধান তথ্য অফিসার কামরুন নাহারের সভাপতিত্বে অতিরিক্ত প্রধান তথ্য অফিসার ফজলে রাব্বীসহ তথ্য অধিদপ্তরের সব কর্মকর্তা-কর্মচারি এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

বিজয়ের মাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করে তথ্যসচিব বলেন, ‘বাঙালি জাতির স্রষ্টা, বাংলাদেশের রাষ্ট্রপিতা চরম আত্মত্যাগের মাধ্যমে আমাদের হাতে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ দিয়ে গেছেন। সততা ও নৈতিকতা চর্চার মাধ্যমে এদেশকে সুখী-সমৃদ্ধ, শোষণমুক্ত ও স্বচ্ছ রাখার দায়িত্ব আমাদেরই।’

আবদুল মালেক বলেন, ‘শুদ্ধাচারের চর্চায় কোনো বিলম্ব করার সুযোগ নেই।’ এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘অতীতের অশুদ্ধ আচরণ শোধরানো কঠিন, তাই এ মুহূর্ত থেকেই শুদ্ধতার চর্চা করতে হবে। সততা, ন্যায্যতার পাশাপাশি পারস্পরিক সহমর্মিতাও শুদ্ধাচারের অংশ।’

সচিব এ সময় অতীতের সকল শুদ্ধাচার পুরস্কারপ্রাপ্তদের এবং ভবিষ্যত পুরস্কার বিজয়ীদেরও আগাম অভিনন্দন জানান।

প্রধান তথ্য অফিসার কামরুন নাহার তার বক্তব্যে শুদ্ধাচার কৌশল অনুসরণ করে তথ্য অধিদপ্তরের কাজকে আরও বেগবান ও দায়িত্বশীল রাখার জন্য দপ্তরের সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

তথ্য অধিদপ্তরের সিনিয়র তথ্য অফিসার দীপংকর বর, প্রধান সহকারী শাহ মো. রুহুল আমীন চিস্তি, আঞ্চলিক তথ্য অফিস রাজশাহীর সিনিয়র তথ্য অফিসার ফারুক মো. আব্দুল মুনিম ও ডেসপ্যাচ রাইটার মো. আবু বক্কর সিদ্দিক, চট্টগ্রাম আঞ্চলিক তথ্য অফিসের সহকারী তথ্য অফিসার জি এম সাইফুল ইসলাম ও টেলেক্স অপারেটর মো. সজিব মিয়া এবং আঞ্চলিক তথ্য অফিস খুলনার সাঁট-মুদ্রারিক কাম কম্পিউটার অপারেটর মো. জাকির হোসেন চলতি বছরের শুদ্ধচার পুরস্কার লাভ করেন।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে