আখ ক্ষেতে আগুন, হাতেনাতে আটক মিল শ্রমিক

  গোবিন্দগঞ্জ প্রতিনিধি

১২ জানুয়ারি ২০১৯, ২২:১০ | আপডেট : ১৩ জানুয়ারি ২০১৯, ০১:০২ | অনলাইন সংস্করণ

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় অবস্থিত রংপুর সুগার মিলের নিজস্ব আখ ক্ষেতে পঞ্চমবারের মতো অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার মহিমাগঞ্জে এই মিলের ক্ষেতে আগুন দেওয়ার সময় হাতেনাতে ধরা পড়েছেন ফরিদুল ইসলাম (৩৫) নামে এক মিল শ্রমিক।

গতকাল শনিবার দুপুরে মিলের আখ ক্ষেতে আগুন দেওয়ার সময় আনসার সদস্যদের হাতে ধরা পড়েন ফরিদুল। তাকে পুলিশে দেওয়া হয়েছে।

গত কয়েকদিন যাবৎ মহিমাগঞ্জে অবস্থিত রংপুর সুগার মিলের নিজস্ব আখ ক্ষেতে আগুনের ঘটনা ঘটছে। কিন্তু কি কারণে বা কিভাবে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে তা বুছতে পারছিলেন না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। প্রতিবারই আগুনের ঘটনায় উপজেলা ফায়ার সার্ভিস কাজ করলেও রহস্য উদঘাটন করতে পারছিল না অগ্নিনির্বাপক সংস্থাটি।

কয়েকদিন আগে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক আব্দুল মতিন, পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রামকৃষ্ণ বর্মন, সহকারি পুলিশ সুপার রেজিনূর রহমান, গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একে এম মেহেদী হাসান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তদন্ত শুরু করেন। পরপর চারবার আগুনের ঘটনা ঘটার পরও তারা কোনো কূল কিনারা করতে পারছিলেন না।

এর মধ্যে আজ দুপুরে আখ কাটার সময় মিল শ্রমিক ফরিদুল ইসলাম ক্ষেতে আগুন ধরিয়ে দেন। এ সময় মিলের নিরাপত্তায় কর্তব্যরাত আনসার সদস্যরা তাকে দেখতে পেয়ে হাতেনাতে ধরে ফেলে। পরে তাকে পুলিশে দেয় মিল কর্তৃপক্ষ।

আটক ফরিদুল উপজেলার গুমানীগঞ্জ ইউনিয়নের নয়া পাড়া গ্রামের রমজান আলীর ছেলে। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি আগুন লাগানো বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তার ভাষ্য, মিলে তাড়াতাড়ি আখ সরবরাহের সুবধার্থে আগুন দিয়েছেন।

গোবিন্দগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ইনচার্জ আব্দুল হামিদ আমাদের সময়কে জানান, দুপুরে আখের খামারে আগুনের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা নিয়ন্ত্রনের কাজ শুরু করে। শুকনো পাতা থাকায় আগুন চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে ব্যপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একে এম মেহেদী হাসান আমাদের সময়কে জানান, ক্ষেতে আগুন দেওয়ার সময় ফরিদুল ইসলাম নামে এক শ্রমিককে আটক করেছে মিলে কর্তব্যরত আনসার সদস্যরা। তিনি বলছেন আখ সরবরাহ সহজ করার জন্য আগুন দিয়েছিলেন। তবে এখানে অন্য স্বার্থ আছে বলে আমাদের প্রাথমিক ধারণা। অন্য কেউ জড়িত আছে কিনা খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। তাদের আইনের অওতায় আনা হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৮-২০১৯ মৌসুমে রংপুর চিনিকলের সাহেবগঞ্জ আখ খামারে পঞ্চম দফা অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় সাড়ে ৩শ বিঘা জমির আখ পুড়ে গেছে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে