বাজেটের উপর সাধারণ আলোচনা

উপকূলীয় এলাকার উন্নয়নে বিশেষ প্রকল্প গ্রহণের দাবি

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ জুন ২০১৬, ১৪:৩২ | অনলাইন সংস্করণ

জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে সংসদ সদস্যরা দেশের বিস্তীর্ণ উপকূলীয় এলাকার উন্নয়নে বিশেষ প্রকল্প গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন।

সোমবার সকালে ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বি মিয়ার সভাপতিত্বে এই আলোচনা শুরু হয়। আলোচনায় অংশ নিয়ে ওয়ার্কার্স পার্টির সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ বলেন, উপকূলীয় এলাকায় একদিকে যেমন সিডর-আইলার মতো ভয়াবহ দূর্যোগের আক্রমণ চলে, তেমনি জঙ্গি মৌলবাদিকরা প্রতিনিয়ত আক্রমণ করছে। নানামূখী আক্রমণের শিকার এই অঞ্চলের মানুষকে রক্ষায় বিশেষ প্রকল্প গ্রহণ করতে হবে। আগামী অর্থ বছরের বাজেটে এবিষয়ে থোক বরাদ্দ দেওয়ার দাবি জানান তিনি।

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আরো কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ২০০১ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াত জোট দেশে যে পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছিলো তা দেশকে পিছিয়ে দিয়েছে। তাদের সন্ত্রাস  বোমবাজি ও নৈরাজ্যের রাজনীতি দেশকে পাকিস্তানের দিকে ফিরিয়ে নেওয়ার ষড়যন্ত্রের অংশ। এখনো ষড়যন্ত্র চলছে উন্নয়ন ও অগ্রগতির বিরুদ্ধে। এ সকল ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের বিরুদ্ধে দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারী দলের সদস্যরা প্রস্তাবিত বাজেটকে অত্যন্ত যুগোপযোগি দাবি করে বলেন, পুরো বাংলাদেশ এখন উন্নয়ন ও অগ্রগতির সোপানে। বিএনপির আমলে যেখানে বাজেট ছিল ৭৯ হাজার কোটি টাকার, সেখানে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের বাজেটের আকার হয়েছে ৩ লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকা। এই বিশাল আকার দিয়ে বিশ্বের সামনে বাংলাদেশের সক্ষমতা, উন্নয়ন, অগগ্রতির চিত্র তুলে ধরেছে বর্তমান সরকার। এই বাজেটের মধ্যেই অন্তর্নিহিত আছে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দৃপ্ত শপথ, মানবকল্যাণ ও উন্নয়নের সোপান। বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে নানা ষড়যন্ত্র চলছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে