মেলায় বঙ্গবন্ধু-প্রধানমন্ত্রীর ছবি দিয়ে আ.লীগ নেতার র‌্যাফেল ড্র বাণিজ্য

প্রকাশ | ১১ জানুয়ারি ২০১৭, ১৮:৩৯

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

বগুড়ার শিবগঞ্জের সরকারের উন্নয়ন মেলায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিকৃত ছবি দিয়ে র‌্যাফেল ড্র’র (লটারি) নামে জুয়া চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা  আওয়ামী লীগের সদস্য আজিজুল হক এই লটারির আয়োজন করেছেন। এ নিয়ে দলের নেতাকর্মীদের মনে ক্ষোভের সঞ্চার হলেও ভয়ে কেউ প্রকাশ্য মুখ খুলছেন না।

গত ৯ জানুয়ারি থেকে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার বিকৃত ছবি দিয়ে র‌্যাফেল ড্র’র হাজারো টিকিট বিক্রি করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত মেলায় র‌্যাফেল ড্র’র টিকিটে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ব্যবহার করা হলেও কেউ তাতে গুরুত্ব দিচ্ছেন না।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, গত ৯ জানুয়ারি তিনদিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলা শুরু হয়। স্থানীয় প্রশাসন আয়োজিত উপজেলা পরিষদের ক্যাম্পাসে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশব্যাপী একযোগে মেলার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মেলায় সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরের প্রায় অর্ধশত স্টল রয়েছে। মেলার মাঝখানে শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুল হক একটি স্টল দিয়েছেন।

তাতে ‘কিছুক্ষণ রাফেল ড্র’ নামে টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। সেই টিকিটে লেখা আছে “উন্নয়নের গণতন্ত্র-শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র”। ‘কিছুক্ষণ রাফেল ড্র’ উন্নয়ন মেলা-২০১৭। আয়োজনে উপজেলা প্রশাসন, শিবগঞ্জ, বগুড়া। সৌজন্যে জননেতা আজিজুল হক, সভাপতি শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সদস্য জেলা বগুড়া আওয়ামী লীগ।

টিকিটের গায়ে কোনো মূল্য লেখা না থাকলেও ২০টাকা করে বিক্রি করা হচ্ছে। তবে বিক্রির সময় একটি সামুচা ফ্রি দেওয়া হচ্ছে। এক রঙের টিকিটে উপরে বাম কোনায় অতি ক্ষুদ্র আকারে বিকৃতভাবে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ব্যবহার করা হয়েছে।  

প্রথম পুরস্কার হিসেবে রয়েছে ১৪ ইঞ্চি রঙিন টেলিভিশন, দ্বিতীয় পুরস্কার বড় গ্যাসের চুলা, ৩য় পুরস্কার ছোট গ্যাসের চুলা, ৪র্থ ব্লেন্ডার, ৫ম রাইস কুকারসহ মোট ১০টি পুরস্কার।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে উপজেলা আওয়ামী লীগের বেশ ক’জন নেতাকর্মী জানান, জুয়ার টিকিটে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি দিয়ে তাদের অবমাননা করা হয়েছে। কিন্তু এ কথাটি সভাপতিকে বলবে কে? কারণ উনি একাই এক'শ। তিনি নিজে যা বুঝেন তাই করেন। কারও পরামর্শের তোয়াক্কা করেন না। তাছাড়া টাকার লোভে তিনি সব করতে পারেন।

এ বিষয়ে শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজার রহমান মোস্তা জানান, উন্নয়ন মেলায় সভাপতি নিজ উদ্যোগে স্টল দিয়েছেন। এর সঙ্গে দলের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। এমনকি দলীয়ভাবে স্টল দেবার কোনো সিদ্ধান্তও হয়নি। তবে র‌্যাফেল ড্র বা লটারির টিকিটে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি দিয়ে ঠিক করেনি।

অভিযোগ প্রসঙ্গে আজ বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আজিজুল হক বলেন, ‘মেলার মধ্যে আছি, কিছুই শোনা যাচ্ছে না বলেই সংযোগ কেটে দেন’।  

শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমিনুর রহমান জানান, লটারি মেলার কোনো ক্ষতি করেনি। বরং বাড়তি আনন্দ দিয়েছে। আর লটারির টিকিটে কার ছবি ব্যবহার করা হয়েছে তা তিনি জানেন না। শুধু লটারি দেয়ার বিষয়টি জানেন।