প্রবাসীদের পাঠানো চেক গ্রহণে ব্যাংকগুলো কঠোর নির্দেশনা

  নিজস্ব প্রতিবেদক

০৯ অক্টোবর ২০১৭, ১৯:১২ | অনলাইন সংস্করণ

নগদ রেমিটেন্স সংগ্রহে আগ্রহী হলেও প্রবাসীদের পাঠানো চেক গ্রহণ করছে না ব্যাংকগুলো। এতে প্রবাসীরা ব্যক্তিগত নায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এবং রাষ্ট্র বৈদেশিক মুদ্রা পাচ্ছে না। এ বিষয়ে ব্যাংকগুলো কঠোরভাবে সতর্ক করা হয়েছে। চেকসহ প্রবাসীদের পাঠানো ব্যাংকিং যেকোন ইনস্ট্রুমেন্ট গ্রহণ করে তা নগদায়নে পদক্ষেপ নিতে ব্যাংকগুলো নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আজ এ সংক্রান্ত সার্কুলার জারি করে সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

সূত্র জানায়, নগদ অর্থ ছাড়াও বিকল্প যেকোন মাধ্যমে ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিটেন্স প্রেরণ উৎসাহিত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এক্সচেঞ্জ হাউজগুলোর মাধ্যমে নগদ অর্থ ছাড়াও বিভিন্ন ইনস্ট্রমেন্ট যেমন চেক ও বৈদেশিক মুদ্রার ড্রাফট নগদায়ন করা যায়। সাধারণত বিদেশে কর্মরত বাংলাদেশি প্রবাসীরা কর্ম মেয়াদ শেষে চুক্তি অনুযায়ী পেনশন, কোন কারণে মৃত্যু হলে পাওনা অর্থ চেক বা ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে পান সুবিধাভোগীরা। কিন্তু বাংলাদেশের ব্যাংকগুলো কোন কারণ ছাড়াই ওই চেক ও ড্রাফট গ্রহণ করেন না। এতে ভোগান্তি পড়তে হয় প্রবাসীদের আত্মীয় স্বজনরা।

সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো সার্কুলারে বলা হয়েছে, চেক ও ব্যাংক ড্রাফট বৈধ লেনদেনের মাধ্যম। এটি অবশ্যই গ্রহণ করতে হবে। এটি গ্রহণ না করার কারণে প্রবাসীরা তাদের পাওনা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। অন্যদিকে রাষ্ট্র প্রচুর পরিমান বৈদেশিক মুদ্রা হারাচ্ছে। কোন শাখায় চেক উপস্থাপন করা হলে তা কালেকশনের জন্য গ্রহণ করতে হবে। কোন কারণে কালেকশন করা না গেলে কি কারণে সেটি করা যায়নি তা লিখিতভাবে গ্রাহককে জানাতে হবে। ওই লিখিত কপি বাংলাদেশ ব্যাংকেও পাঠাতে হবে। চেক গ্রহণ না করা গ্রাহক হয়রানী বিবেচনা করবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে