কোটা বাতিলে প্রজ্ঞাপনের দাবিতে ঢাবিতে ধর্মঘট

  বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

১৪ মে ২০১৮, ১২:২৪ | আপডেট : ১৪ মে ২০১৮, ১৩:২৭ | অনলাইন সংস্করণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোটা বাতিলের ঘোষণা এতদিনেও প্রজ্ঞাপন আকারে জারি না হওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ধর্মঘট পালন করেছে শিক্ষার্থীরা। এ সময় কোনো কালক্ষেপণ না করে অবিলম্বে চাকরিতে কোটা পদ্ধতি সংস্কারে প্রজ্ঞাপন জারির আহ্বান জানিয়ে স্লোগান দেন তারা।

আজ সোমবার সকালে বিভিন্ন হল থেকে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে এসে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এসে জড়ো হন। পরে তাদের একটি অংশ বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ঢাবির বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট প্রদক্ষিণ করেন। মিছিলে শিক্ষার্থীরা, 'আর নয় কালক্ষেপণ, দিতে হবে প্রজ্ঞাপন', 'শেখ হাসিনার ঘোষণা, বাস্তবায়ন করতে হবে' ইত্যাদি স্লোগান দেন।

সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের দাবিতে গত ৮ এপ্রিল শাহবাগ অবরোধ করে আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা। পুলিশ তাদের উঠিয়ে দিলে রাতভর ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায়। সে রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর ও তাণ্ডব চালায় দুর্বৃত্তরা।

পরে পক্ষে-বিপক্ষে সংসদ ও দেশব্যাপী তুমুল আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে ১১ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী সংসদে ঘোষণা দেন, চাকরিতে আর কোটাই থাকবে না। কোটা বাতিলের ঘোষণার পর আন্দোলনকারীরা ক্যাম্পাসে আনন্দ মিছিল করে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে 'মাদার অব এডুকেশন' উপাধিতে ভূষিত করে।

এর পর থেকে শিক্ষার্থীরা প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা প্রজ্ঞাপন আকারে প্রকাশের দাবি জানিয়ে আসছে। গত ৯ এপ্রিল বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন থেকে বৃহস্পতিবারের (১০ এপ্রিল) মধ্যে প্রজ্ঞাপনের দাবি জানান। অন্যথায় রোববার (১৩ এপ্রিল) থেকে তারা ফের আন্দোলনের নামবেন বলে ঘোষণা দেন।

পরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কোটা সংস্কারে কমিটি গঠনের প্রস্তাব পাঠায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। তবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কমিটি গঠনের এ উদ্যোগকে আন্দোলন ভণ্ডুলের ষড়যন্ত্র আখ্যা দিয়ে তা প্রত্যাখ্যান করেন আন্দোলনকারীরা।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে