শিক্ষার্থীদের সঠিকপথে পরিচালনার দায়িত্ব ভিসিদের : শিক্ষামন্ত্রী

  নিজস্ব প্রতিবেদক

০৮ আগস্ট ২০১৮, ২০:১৯ | আপডেট : ০৮ আগস্ট ২০১৮, ২০:৪৯ | অনলাইন সংস্করণ

ছাত্র-ছাত্রীদের বিশৃঙ্খলা এড়াতে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের (ভিসি) দায়িত্বশীল হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের সঠিকপথে পরিচালনার দায়িত্ব ভিসিদের। না পারলে জবাবদিহি করতে হবে। আমরা মন্ত্রণালয় এবং ইউজিসি আপনাদের পাশে আছি।’

আজ বুধবার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী। নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের মধ্যে পুলিশের সঙ্গে কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের প্রেক্ষাপটে দেশের সব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের নিয়ে এই সভার আয়োজন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

উপাচার্যদের সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রী বলেন, ‘মাফ করে দেওয়ার প্রশ্ন তো নেই। উদ্দেশ্যমূলকভাবে যায় এবং ক্রাইম করে তাহলে আইন দেখবে। আমরা চাইব নিরাপরাধ শিকক্ষ-শিক্ষার্থী যেন হয়রানির শিকার না হয়। নিরাপরাধ শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের প্রতি আমরা সহানুভূতিশীল। প্রধানমন্ত্রীও সাধারণ ছাত্রদের ব্যাপারে সহানুভূতিশীল। যারা গুজব ছড়িয়ে বিশঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করেছে তাদের ব্যাপারে আইন দেখবে।’

সভায় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য অর্জনে কেউ উদ্দেশ্যেমূলকভাবে বাধা দিলে দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। নাগরিকরা ক্ষতিগ্রস্ত হবে। কোনোভাবেই শিক্ষা কার্যক্রম ক্ষতিগ্রস্ত হোক তা চাই না।’

ইউজিসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, ‘আমরা চাই এক দিনের জন্য যেন বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বন্ধ না হয়। শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে ইউজিজির পক্ষ থেকে সব রকমের সহায়তা দেওয়া হবে।’

প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাসোসিয়েশনের ভাইস চেয়ারম্যান এবং ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির উপাচার্য আব্দুল মান্নান চৌধুরী বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের একেবারে মাফ করে দেন। যে যেখানে যা করেছে। শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার এই আবেদন।’

নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের ভিসি আনোয়ারুল করিম বলেন, ‘তৃতীয় পক্ষ যদি ঢুকে যায়, রাজনৈতিক ফায়দা নেওয়ার চেষ্টা হয় তাহলে খুব খারাপ হয়ে যাবে।’ দুর্ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির আওতায় আনার সুপারিশ করেন তিনি।

প্রাইম এশিয়া ইউনিভার্সিটির ভিসি আব্দুল হান্নান চৌধুরী বলেন, ‘প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যেন বিনা অনুমতিতে পুলিশ না প্রবেশ করে।’ নিরাপরাধদের ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ করেন তিনি।

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘পরিবহন বন্ধ থাকায় উপস্থিতি কমে গিয়েছিল, আমরা ক্লাস কোনো কারণে বন্ধ করিনি।’

প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শেখ কবির হোসেন উদ্ভুদ পরিস্থিতি সুন্দর সমাধান করায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে