'কনডম দিয়ে আমার গলায় ফাঁস লাগান কাস্টিং ডিরেক্টর'

  বিনোদন ডেস্ক

১৪ জুলাই ২০১৮, ১৩:৪৫ | আপডেট : ১৪ জুলাই ২০১৮, ১৩:৫১ | অনলাইন সংস্করণ

কাস্টিং কাউচের ভয়াবহ অভিজ্ঞতা নিয়ে বিশ্বব্যাপী অনেক নামকরা তারকারা মুখ খুলেছেন। দোষী সাব্যস্তও হয়েছেন অনেক জনপ্রিয় মুখ। এবার ছবির সেটে ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন অস্কারজয়ী মার্কিন অভিনেত্রী মিরা সরভিনো। সম্প্রতি মিরা এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, এক কাস্টিং ডিরেক্টর তাকে কনডম দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে দিয়েছিলেন। তখন তার বয়স ছিল ১৬ বছর। সেই বয়সে ঘটনাটি বোঝার মতো মানসিকতাও ছিল না তার।

কাস্টিং কাউচ নিয়ে এর আগেও সরব হয়েছিলেন ৫০ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী। যৌন হেনস্থা নিয়ে #MeToo আন্দোলনে নিয়মিত সোচ্চারও ছিলেন তিনি।

এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘আমার বয়স যখন ১৬ বছর, তখন প্রথম অডিশন দেই। এ সময় এক কাস্টিং ডিরেক্টর আমার সঙ্গে অশালীন ব্যবহার করেছিলেন। আমাকে ভৌতিক সিনেমার একটি সিন দেওয়া হয়েছিল। সেই সিন করার সময় আমাকে একটি চেয়ারে বসতে বলা হয়। তখনই সেই কাস্টিং ডিরেক্টর আমাকে চেয়ারের সঙ্গে বেঁধে দেন। তারপর কনডম দিয়ে আমার গলায় ফাঁস লাগিয়ে দেন।’

পরে এমন কাজের জন্য ওই কাস্টিং ডিরেক্টর ক্ষমাও চেয়েছিলেন বলে আরও জানান এই অভিনেত্রী। মিরা বলেন, ‘দৃশ্যটি ভয়ের ছিল। আমি যাতে ভয় পাই, তাই ওই কাজ করা হয়েছিল।’

মিরা আরও জানিয়েছেন, তখন তিনি অনেকটাই ছোট ছিলেন। কনডমের ‘স্বাদ’ বুঝতেন না। কিন্তু আজও তিনি এটা বোঝেন না, একজন কাস্টিং ডিরেক্টর কেন নিজের পকেটে কনডম নিয়ে ঘুরতেন। বিশেষ করে অডিশনে আসার সময় তো আর কনডমের ব্যবহার হতো না।

হলিউডে প্রথম দিকে স্ট্রাগল করার সময় অনেককেই এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়। তখন অনেকেই এই পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। আর অনেক কাস্টিং কর্মকর্তা এই মনোভাবের ফায়দা তোলেন বলে জানিয়েছেন অস্কারজয়ী এই অভিনেত্রী।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে