আরুশি হত্যাকাণ্ডে বেকসুর খালাস তালওয়ার দম্পতি

  অনলাইন ডেস্ক

১২ অক্টোবর ২০১৭, ১৬:৫০ | আপডেট : ১২ অক্টোবর ২০১৭, ১৭:০৭ | অনলাইন সংস্করণ

ভারতের নয়াদিল্লির নয়ডা এলাকার ১৪ বছরের কিশোরী আরুশি তালওয়ার হত্যা মামলায় তার বাবা-মা রাজেশ তালওয়ার ও নূপুর তালওয়ার নির্দোষ বলে জানিয়েছে হাইকোর্ট।

আজ বৃহস্পতিবার এলাহাবাদের হাইকোর্ট এ চূড়ান্ত রায় দেন। আদালতের পর্যবেক্ষণ, শুধুমাত্র সন্দেহের ভিত্তিতেই কাউকে দোষী সাব্যস্ত করা যায় না।

এর আগে আরুশি তালওয়ার এবং হেমরাজ হত্যা মামলায় আরুশির বাবা-মাকে বেকসুর খালাস করেছিল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। পরে বিশেষ সিবিআই আদালত এই মামলায় তালওয়ার দম্পতিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছিল। সেই রায়ের বিরুদ্ধেই এলাহাবাদ হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন চিকিৎসক দম্পতি।

আজ হাইকোর্ট জানিয়ে দেয়, রাজেশ তালওয়ার এবং নূপুর তালওয়ার দোষী নন। তারা আরুশি এবং হেমরাজকে খুন করেননি বলে হাইকোর্ট মনে করছে।

২০০৮ সালের ১৬ মে নয়ডার জলবায়ু বিহারে নিজের বাড়িতে খুন হয় কিশোরী আরুশি তালওয়ার। ঘরের ভেতর থেকে তার গলাকাটা দেহ উদ্ধার হয়। সেই সময় নিখোঁজ ছিল তালওয়ারদের পরিচারক হেমরাজ। দু’দিন পরে ওই বাড়িরই ছাদে পানির ট্যাঙ্ক থেকে হেমরাজের মরদেহ উদ্ধার হয়।

অভিযোগ ওঠে, নিজের মেয়ে আরুশিকে খুন করেছেন রাজেশ ও নূপুর। মামলা চলে সিবিআই আদালতে। ২০১৩ সালে আরুশি হত্যা মামলায় তালওয়ার দম্পতিকে দোষী সাব্যস্ত করে সিবিআই আদালত। সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টে মামলা করেন রাজেশ ও নূপুর।

তদন্তকারী কর্মকর্তাদের অভিযোগ, গৃহপরিচারকের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় আরুশিকে দেখে ক্ষুব্ধ হন দন্তচিকিৎসক দম্পতি রাজেশ তালওয়ার ও নূপুর তালওয়ার। পরে তারা নিজেদের সম্মান বাঁচাতে তাকে হত্যা করেন। তবে ওই দম্পতি নিজেদের নির্দোষ দাবি করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে