ট্রাম্প-কিম বৈঠক

উল্টো সুরে উ. কোরিয়া

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৭ মে ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৭ মে ২০১৮, ০০:৫৮ | অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের বহুল প্রতীক্ষিত বৈঠকটি ১২ জুন সিঙ্গাপুরে বসার কথা রয়েছে। এর মধ্যে গতকাল উত্তর কোরিয়া এক ক্ষুব্ধ বিবৃতিতে জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র যদি পারমাণবিক অস্ত্র ধ্বংস করার চাপ দেয় তা হলে তারা ওই শীর্ষ বৈঠকে বসবে না। এর কারণ হিসেবে উত্তর কোরিয়া সরাসরি মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনকে দায়ী করেছে। উত্তর কোরিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী গিয়ে গুয়ান বলেন, আমরা তাকে (জন বোল্টন) জঘন্য মানুষ মনে করি।

সম্প্রতি জন বোল্টন সম্প্রতি বলেছিলেন উত্তর কোরিয়া ‘লিবিয়া মডেল’ অনুসরণ করতে পারে যেখানে দেশটি যে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত হয়েছে তা যাচাইযোগ্য হবে।

লিবিয়ার সঙ্গে তাদের তুলনা উত্তর কোরিয়া মোটেই পছন্দ করেনি। কিম গিয়ে গুয়ান তার বিবৃতিতে বলেছেন এ ধরনের বক্তব্য সংলাপের মাধ্যমে একটা সমস্যা সমাধানের পথে এগোনোর মনোভাব হতে পারে না। পরাশক্তির হাতে লিবিয়া ও ইরাকের যে পরিণতি হয়েছিল তা আমাদের মতো সম্মানিত একটা রাষ্ট্রের ওপরও চাপিয়ে দেওয়ার এটা একটা চরম অশুভ অভিপ্রায়। এই বিবৃতি জারির কয়েক ঘণ্টা আগে উত্তর কোরিয়া গতকাল বুধবার দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে তাদের নির্ধারিত বৈঠকও বাতিল করে দিয়েছে। সেটাও সমস্যা যে আরও জটিল হচ্ছে তার একটা ইঙ্গিত।

উল্লেখ্য, ২৭ এপ্রিল দুই কোরিয়ার শীর্ষ নেতৃবৃন্দ ওই অঞ্চলকে পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত এলাকা গড়ে তোলার অঙ্গীকার করেছিলেন। তারই ধারাবাহিকতায় ১২ জুন কিম-ট্রাম্প বৈঠক হওয়ার কথা ছিল, যা কোরীয় অঞ্চলে শান্তি প্রচেষ্টায় আশার সঞ্চার করেছিল।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে