কলম্বাসের চুরি যাওয়া চিঠি ফেরত পেল স্পেন

  অনলাইন ডেস্ক

০৯ জুন ২০১৮, ১২:১২ | অনলাইন সংস্করণ

পাঁচশ বছর আগে বিখ্যাত নাবিক ক্রিস্টোফার কলম্বাসের চুরি হয়ে যাওয়া চিঠি উদ্ধার করে স্পেনকে ফেরত পাঠাল যুক্তরাষ্ট্র। আমেরিকা আবিষ্কারের পর রাজা ফার্দিনান্দ ও রানি ইসাবেলাকে উদ্দেশ্য করে এ চিঠিটি লিখেছিলেন কলম্বাস।

গতকাল শুক্রবার আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ২০০৭ সালে চুরি হয়ে যাওয়া চিঠিটি ওয়াশিংটনে স্পেনের রাষ্ট্রদূত পেদ্রো মোরেনেসের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি ডেভিড ওয়েসিস বলেন,‘ঐতিহাসিক গুরুত্বপূর্ণ এই চিঠিটির প্রকৃত দাবিদার স্পেনকে ফেরত দিতে পেরে আমরা খুবই সম্মানিত বোধ করছি।’

অন্যদিকে পেদ্রো মোরেনেস বলেন,‘যুক্তরাষ্ট্র ও স্পেন যে আত্মার বন্ধনে আবদ্ধ, এই চিঠি হস্তান্তর তাই মেলে ধরল।’

১৪৯৩ সালে আমেরিকা আবিষ্কারের পর কলম্বাস তার যাত্রার বিবরণ দিয়ে স্পেনের রাজা ও রানিকে এই চিঠিটি লিখেন। চিঠিতে কলম্বাস ক্যারিবীয় পাহাড়, উর্বর ভূমি, সোনা ও আদিবাসীদের কথা লিখেছিলেন। স্পেনিশ ভাষায় লেখা চিঠিটি তৎকালীন রাজা ফার্দিনান্দ রোমে পাঠিয়ে লাতিন ভাষায় রূপান্তর করান। এ সময় চিঠিটির অসংখ্য কপি করে কলম্বাসের নতুন মহাদেশ আবিষ্কারের খবর ছড়িয়ে দেওয়া হয় ইউরোপের রাজা ও রানিদের মধ্যে।

লাতিন ভাষার এই চিঠির একটি কপি সংরক্ষিত ছিল স্পেনের বার্সেলোনার ন্যাশনাল লাইব্রেরি অব কাতালোনিয়ায়। কিন্তু ২০১১ সালে কর্তৃপক্ষ ইঙ্গিত পায়, লাইব্রেরিতে আসল চিঠিটি চুরি হয়ে গেছে। সেখানে রাখা হয়েছে জাল চিঠি। এ নিয়ে চিঠিটি উদ্ধারের জন্য তদন্তে নামে স্পেন ও যুক্তরাষ্ট্র। ২০১২ সালে তদন্তকারীরা নিশ্চিত হয় যে আসল চিঠিটি আসলেই চুরি হয়েছে বার্সেলোনা থেকে।

তদন্তকারীরা ধারণা করছেন, চিঠিটি প্রথমে ২০০৫ সালে ছয় লাখ ইউরোতে (প্রায় ৬ কোটি) বিক্রি করা হয়। সম্প্রতি ২০১১ সালে তা অন্য বিক্রেতার কাছে নয় লাখ ইউরোতে (প্রায় ৯ কোটি টাকা) হাতবদল করা হয়েছে। এরপরই বর্তমান বিক্রেতার সঙ্গে কর্তৃপক্ষ যোগাযোগ করেন। ওই ব্যক্তি জানতেন না যে এই চিঠিটি বার্সেলোনা থেকে চুরি হয়েছিল। পরে তিনি চিঠিটি হস্তান্তরের জন্য রাজি হন।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
ashomoy-todays_most_viewed_news