নির্বাচনে ছেলের সমর্থন না পেয়ে প্রার্থীর আত্মহত্যা (ভিডিও)

  অনলাইন ডেস্ক

২২ জুলাই ২০১৮, ১৬:০২ | আপডেট : ২২ জুলাই ২০১৮, ১৬:১০ | অনলাইন সংস্করণ

নির্বাচনে দাঁড়িয়ে নিজের সন্তানের কাছ থেকে সমর্থন না পেয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক প্রার্থী। আত্মহননের আগে একটি ভিডিওতে নিজের ছেলেকে দায়ী করেছেন মির্জা আহমেদ মুঘল নামে ওই ব্যক্তি। হোয়াটসঅ্যাপ ম্যাসেঞ্জারে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের ফয়সালাবাদে। দেশটির সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আসন্ন ২৫ জুলাই দেশটির জাতীয় নির্বাচনে ফয়সালাবাদের ১০৩ আসন থেকে ট্রাক মার্কায় জাতীয় পরিষদ ও প্রাদেশিক পরিষদের স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছিলেন মির্জা আহমেদ মুঘল (৪৫)। ছেলের কাছে নির্বাচনে সহায়তা করতে সমর্থন চান তিনি। কিন্তু তার ছেলেও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হওয়ায় দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন দুজন।

আত্মহননের আগে একটি ভিডিও বার্তা তৈরি করেন মির্জা আহমেদ। যেখানে তিনি জানান, নির্বাচনে দাঁড়ানোর পর ছেলের কাছে সমর্থন চান তিনি। কিন্তু তার ছেলে তাকে সমর্থন দেননি। উল্টো তার নির্বাচনী এলাকায় ভোটারদের তাকে ভোট দিতে নিরুৎসাহিত করছেন তার ছেলে। এতে তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন। এ কারণে নিজেকে গুলি করে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন।

নিজের শরীরে গুলি চালানোর আগে হোয়াটসঅ্যাপ ম্যাসেঞ্জারে ভিডিওটি পাঠান তিনি। পরে ওই ভিডিও দেখে দলের লোকজন একটি গোরস্থান থেকে তার লাশ উদ্ধার করে।

এদিকে মির্জা আহমেদের মৃত্যুর পর ওই আসনের ভোট স্থগিত করেছে দেশটির নির্বাচন কমিশন। ২০১৭ সালের নির্বাচনী আইন অনুসারে বুধবারের পর যে কোনো দিন সেখানে নির্বাচন হবে। নির্বাচনী আইনের ৭৩ ধারায় বলা হয়েছে, ভোট শুরু হওয়ার আগে যদি কোনো প্রার্থী মারা যান, তবে রিটার্নিং কর্মকর্তা নির্বাচন স্থগিত করতে পারবেন।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে