জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট নানগাগোয়া

  অনলাইন ডেস্ক

০৩ আগস্ট ২০১৮, ১৩:০৩ | অনলাইন সংস্করণ

জিম্বাবুয়ের গত ৩০ জুলাই অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল ঘোষণা করেছে দেশটির নির্বাচন কমিশন। গতকাল বৃহস্পতিবার কমিশনের ঘোষিত ফলাফলে বিজয়ী হয়েছেন প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগোয়া।

সিএনএম এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৫০ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন নানগাগোয়া। আর ৪৪ দশমিক ৩ শতাংশ ভোট পেয়েছেন মুভমেন্ট অব ডেমোক্র্যাটিক চেঞ্জ (এমডিসি) নেতা নেলসন চামিসা।

ফল ঘোষণার পর নানগাগোয়া টুইটারে একে ‘নতুন শুরু’ আখ্যা দিয়েছেন।

নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর চামিসা অভিযোগ করেছেন, ঘোষিত ফলাফল এখনও যাচাই করা হয়নি। তবে দেশটির নির্বাচন কমিশন বলছে, ফলাফল নিয়ে কোনো ধরণের চাতুরির আশ্রয় নেওয়া হয়নি।

এদিকে ফল প্রত্যাখান করার পর পরই নির্বাচন কমিশনের মঞ্চ থেকে বিরোধী নেতাদের পুলিশ সরিয়ে দিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

গত ৩০ জুলাই দেশটিতে একইসঙ্গে পার্লামেন্ট ও প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সংগঠিত হয়।  গত ১ আগস্ট পার্লামেন্ট নির্বাচনের ফল ঘোষণা করা হয়। তাতে দুই তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায় ক্ষমতাসীন জানু-পিএফ পার্টি।

এরপরই দেশজুড়ে ব্যাপক সহিংসতা শুরু হয়। বুধবার সেনাবাহিনীর গুলিতে ছয় জন নিহত হয়েছেন। এরমধ্যেই ঘোষিত হলো প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল। দেশটির সংবিধান অনুসারে প্রথম দফার নির্বাচনে কোনও প্রার্থী ৫০ শতাংশ ভোট না পেলে সর্বোচ্চ ভোট পাওয়া দুই প্রার্থী দ্বিতীয় দফার নির্বাচনে অংশ নেবে।

এর আগে গত বুধবার অসম্পূর্ণ সরকারি ফলাফলে জানু-পিএফ পার্টিকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগোয়ারের জানু-পিএফ পার্টি সংসদের ২১০ আসনের মধ্যে ১০৯টি আসনেই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে।

ফল ঘোষণার আগে বিরোধীদলের প্রধান ও প্রেসিডেন্ট প্রার্থী নিজের বিজয় ঘোষণা করেন। এর আগে ফল ঘোষণায় দেরি করার জন্য নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে এক হাত নেন চ্যামিশা।

নির্বাচনে অনিয়ম ও ভোট ডাকাতি হয়েছে বলেও অভিযোগ আনেন চামিসা। শুধু তাই নয়, নগরের আসনগুলোর ফল ঘোষণার পরই রাস্তায় নেমে পড়ে লাল টি শার্ট পড়া বিরোধীরা।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে