শ্লীলতাহানির চেষ্টা করলেই লাগবে ইলেকট্রিক শক!

  অনলাইন ডেস্ক

১১ আগস্ট ২০১৮, ১৪:০০ | আপডেট : ১১ আগস্ট ২০১৮, ১৪:১৪ | অনলাইন সংস্করণ

রাস্তাঘাটে অনেক সময় দুষ্কৃতিকারীদের শ্লীলতাহানির মতো ঘটনার মুখোমুখি হতে হয় নারীদের। এমন উৎপাতের হাত থেকে রক্ষা পেতে 'শকিং সু' নামে এ জুতা পায়ে থাকলেই হবে। এটি পরে থাকলে দুষ্কৃতিকারীদের জোর ঝটকা লাগবে। এমনই একটি স্যান্ডেল তৈরি করেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের খান্ডোয়া জেলার সরকারি বিদ্যালয়ের একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রী।

ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, খান্ডোয়ার গুড়ি গ্রামের সাক্ষী পটেল প্রতিদিন তিন কিলোমিটার রাস্তা পেরিয়ে স্কুলে যায়। রাস্তা প্রায়শই জনশূন্য থাকে। এ কারণে সাক্ষী ও তার সঙ্গীদের মনে সবসময়ই কোনও দুষ্কৃতিকারীর অসভ্য আচরণের আশঙ্কা থাকে। তাদের হাত থেকে নিজেদের রক্ষার জন্য সাক্ষী ‘শকিং শু’ নামে একটা ডিভাইস তৈরি করেছে সাক্ষী। এই ডিভাইস থাকলে কোনও দুষ্কৃতিকারী শ্লীলতাহানি করতে এলেই লাগবে ইলেকট্রিক শক। আর এটি তৈরি করতে তার সময় লেগেছে তিন মাস।

স্যান্ডেলে ব্যাটারিচালিত একটি ইউনিট লাগানো হয়েছে। এটি দেখতে একেবারেই সাধারণ। কিন্তু এর ভেতরেই লুকোনো রয়েছে ডিভাইস। সেই ডিভাইস সুইচ অন হলেই তা সক্রিয় হয়ে যাবে। যার পায়ে এ স্যান্ডেল থাকবে তাকে ছুঁলেই দুষ্কৃতিকারীর লাগবে ইলেকট্রিক শক। এটি মোবাইলের চার্জারেও চার্জ করা যায়।

সাক্ষী জানায়, স্যান্ডেলটি যদি সরকার মডেল হিসেবে ব্যবহার করে, তা মেয়েদের সুরক্ষায় খুব ভালো পদক্ষেপ হবে।

সম্প্রতি একটি বিজ্ঞান প্রদর্শণীতে সাক্ষী এই স্যান্ডেল প্রদর্শন করেছে। সবাই তার এই উদ্ভাবনের প্রশংসা করেছে। এই স্যান্ডেল তৈরির ক্ষেত্রে সাক্ষীকে তার স্কুলের প্রিন্সিপাল ও অন্যান্য ছাত্রীরা সাহায্য করেছেন। এই ডিভাইসের মডেল ভারতের জাতীয় স্তরেও মনোনীত হতে পারে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে