যুক্তরাষ্ট্রে ফ্লোরেন্সের তাণ্ডবে নিহত ১২

  অনলাইন ডেস্ক

১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:১৮ | অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রে হারিকেন ফ্লোরেন্সের তাণ্ডবে এ পর্যন্ত ১২ জনের প্রাণহানি হয়েছে।  যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ও সাউথ ক্যারোলাইনা অঙ্গরাজ্যে ব্যাপক বৃষ্টিপাতে ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শুক্রবার আটলান্টিক মহাসাগর সংলগ্ন যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূল দিয়ে স্থলে উঠে আসার পর ফ্লোরেন্স ক্রমাগত দুর্বল হয়ে পড়েছে। নর্থ ও সাউথ ক্যারোলাইনার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ঝড়টি ধীর গতিতে পশ্চিম দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। গত দুদিনের মধ্যে কোনো কোনো শহরে ৩ দশমিক ৫ ফুট পর্যন্ত পানির উচ্চতা দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যেই ১০ লাখ বাসিন্দা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন।

নর্থ ক্যারোলাইনার গভর্নর রে কুপার বলেছেন, কিছু কিছু জায়গায় পানির উচ্চতা এতোই যে তা ইঞ্চিতে নয় বরং ফুটে মাপতে হচ্ছে।'

বন্যাদুর্গত বাসিন্দাদের বাড়িতে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, 'রাজ্যের সকল রাস্তা বন্যার ঝুঁকিপূর্ণ।' বৃষ্টি থামার পরও কয়েকদিন পর্যন্ত নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন গভর্নর।

এদিকে আগামী সপ্তাহে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বন্যাদুর্গত এলাকাগুলো পরিদর্শন করবেন বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোতে কেন্দ্রীয় তহবিল থেকে জরুরি সাহায্য দেওয়ার বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অনুমোদন দিয়েছেন বলেও জানা গেছে।

নর্থ ক্যারোলাইনায় আটকাপড়া কমপক্ষে ৫০ জন হেলিকপ্টারে সাহায্যে উদ্ধার করা হয়েছে। ২৬ হাজারেরও বেশি লোক বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছেন বলে জানিয়েছেন মার্কিন কোস্টগার্ডের পেটি অফিসার মাইকেল হাইম্স।

গতকাল শুক্রবার উইলমিংটনে ঘরের ওপর গাছ পড়ে শিশুসহ এক মা নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ঝড়ে লেনয়ের কাউন্টিতে সত্তরোর্ধ্ব দুই বৃদ্ধ মারা গেছেন। তাদের একজন (৭৮) বৈদ্যুতিক জেনারেটরের সংযোগ চালু করতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান। অপরজন (৭৭) পোষা কুকুরের খোঁজ নিতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে ঝড়ো বাতাসে পড়ে গিয়ে নিহত হন।

এদিকে হ্যাম্পস্টিডের এক নারী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে খবর দিলেও সড়কে পড়ে থাকা গাছের কারণে জরুরি বিভাগের কর্মীরা সেখানে সময়মতো পৌঁছাতে পারেননি। সাউথ ক্যারোলাইনায় রাস্তায় পড়ে থাকা গাছের সঙ্গে গাড়ির ধাক্কা লেগে ৬২ বছর বয়সী এক নারী নিহত হয়েছেন। অন্যদিকে বাড়ির জেনারেটর থেকে নির্গত কার্বন মনোক্সাইড গ্যাসের প্রভাবে আরও দুজন মারা যান।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে