‘ফাঁস করলেই প্রাণে মেরে ফেলব’

  অনলাইন ডেস্ক

০৯ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:০৬ | আপডেট : ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ১৮:১৪ | অনলাইন সংস্করণ

মন্দিরের একপাশ
মন্দিরের পিছনে এক নারীকে দিনের পর দিন ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে এক পুরোহিতের বিরুদ্ধে।  নির্যাতনের শিকার মানসিক ভারসাম্যহীন ওই নারীর বোনের দাবি, প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে তার বড় বোনকে মাসের পর মাস ধর্ষণ করেন উপেন্দ্র পাঠক নামে ওই পুরোহিত।

ভারতের কলকাতার বেহালা শহরে ওডিআরসি পুলিশ কোয়ার্টারের একটি মন্দিরে ঘটেছে চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা।

ওই নারীর বোনের দাবি, গতকাল বৃহস্পতিবার মন্দিরের পিছনেই ফিসফিসানির শব্দ শুনতে পান তিনি। উঁকি মারতেই তার বড় বোনের সঙ্গে মন্দিরের পুরোহিতকে কথা বলতে দেখেন।  ওই পুরোহিতের বিরুদ্ধে তার মানসিক ভারসাম্যহীন বোনকে ‘ফাঁস করলেই প্রাণ মেরে ফেলব’ বলে হুমকি দেওয়া হয়েছে অভিযোগ করেন তিনি।

তিনি আরও জানান, বড় বোনের শারীরিক গঠনে যে একটা পরিবর্তন আসছিল, তা নজর এড়ায়নি তার।  এর মাঝে পুরোহিতের শাসানি দেখে বোনকে প্রশ্ন করতেই ফাঁস হয়ে যায় সবকিছু।

মন্দিরে পৌরহিত্য করেন পাঠক।  এর পাশের একটি বস্তিতেই বোনের সঙ্গে থাকেন ওই নারী। রোগ ধরা পড়ার পর স্বামী ওই নারীকে ছেড়ে চলে যান।  তারপর থেকে বাপের বাড়িতেই থাকেন তিনি।

মন্দিরের পাশের একটি পুকুরেই রোজ দুপুরে গোসল করতে যান ওই নারী।  এলাকা মোটামুটি ফাঁকা থাকায় পুরোহিতের নজর তার ওপর পড়ে বলে অভিযোগ পরিবারের। গত কয়েক মাস ধরে তাকে ধর্ষণ করে ওই ব্যক্তি।  গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে পুরোহিতকে হুমকি দিতে শুনে ফেলেন ওই নারীর বোন।  তারপরই হাতেনাতে তাকে ধরে ফেলেন।

ওই পুরোহিতের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে ওই নারীর পরিবার।  খবর জানাজানির পর পুরোহিতের ওপর চড়াও হন স্থানীয় বাসিন্দারা।  অভিযুক্ত পুরোহিতকে উদ্ধার করে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।  

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে