খাশোগির মরদেহ টুকরো করার ছবি ফাঁস!

  অনলাইন ডেস্ক

১৯ নভেম্বর ২০১৮, ১৪:২৭ | আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ১৫:০৭ | অনলাইন সংস্করণ

সৌদি আরবের সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার সর্বশেষ প্রমাণ হিসেবে বেরিয়ে এসেছে তার মরদেহ টুকরো করার কয়েকটি ছবি। মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক ওয়েবসাইট আল সুরার একটি প্রতিবেদনে ছবিগুলো প্রকাশ করে দাবি করা হয়েছে তা খাশোগির লাশ টুকরো করার সময়কার। তবে ওই ছবিগুলো এখনও নির্ভরযোগ্য কোনো পক্ষকে দিয়ে যাচাই করা হয়নি।

গত শনিবার প্রকাশিত ওই প্রতিবেদেনে বলা হয়েছে, খাশোগিকে হত্যার পর ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য তার মরদেহ টুকরো টুকরো করা হয়। ছবিটি তুরস্কের এক তদন্ত কর্মকর্তার মাধ্যমে তাদের হাতে এসেছে বলে দাবি করেছে সংবাদমাধ্যমটি। খাশোগি হত্যার প্রায় দেড় মাসের বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো হত্যাকাণ্ডের ছবি প্রকাশিত হলো।

এদিকে ছবিগুলো নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে শুরু হয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। অনেকেই বলছেন, ছবিগুলো ফ্রেঞ্চ টিভি সিরিজ 'বাহাকু' থেকে নেওয়া হয়েছে। 

এদিকে শুরু থেকেই তুরস্কের তদন্ত কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে খাশোগিকে হত্যা করতে সৌদি যুবরাজ তার দেহরক্ষীসহ ১৫ সদস্যের কিলিং স্কোয়াডকে তুরস্কে পাঠানো হয়। খাশোগি সেখানে প্রবেশের পরই তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর তার মরদেহ টুকরো টুকরো করে তা নিশ্চিহ্ন করতে এসিডের মাধ্যমে গলিয়ে ফেলে। আর এর জন্য মাত্র সাত মিনিট সময় নেন তারা। পুরো ঘটনাটির একটি অডিও তুরস্কের তদন্ত কর্মকর্তারাদের কাছে আছে বলে দাবি করেছেন তারা।

এদিকে খাশোগি নিখোঁজ হওয়ার ১৭ দিন পর নানা টালবাহানার পর সৌদি অ্যাটর্নি জেনারেল শেষ পর্যন্ত স্বীকার করতে বাধ্য হন খাশোগিকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। সম্প্রতি সৌদি কর্তৃপক্ষ খাশোগি হত্যায় জড়িত ১১ ব্যক্তিকে অভিযুক্ত করেন। এদের মধ্যে পাঁচ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে তারা।

এদিকে ঘটনার প্রায় একমাস পর তুরস্কের পক্ষ থেকে বলা হয় খাশোগি হত্যার অডিও রেকডিং তাদের হাতে আছে এবং ওই রেকর্ডিংগুলো তারা পশ্চিমা দেশগুলোর কাছে পাঠিয়েছে।  এর পরই গত সপ্তাহে মার্কিন তদন্ত সংস্থা সিআইএ খাশোগি হত্যাকাণ্ডের তদন্তের পর জানিয়েছে যে, গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে খাশোগিকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।

গতকাল রোববার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানান, সিআইএ এর প্রধান জিনা হাসপেলের সঙ্গে সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডে যুবরাজ সালমানের সম্পৃক্ততার প্রমাণ নিয়ে কথা বলেছেন। সোমবার বা মঙ্গলবারের মধ্যে এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের নামসহ একটি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন মধ্যে প্রকাশ করা হবে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে