৭ বছরের দণ্ডে আবারও কারাগারে নওয়াজ শরিফ

  অনলাইন ডেস্ক

২৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:০৬ | আপডেট : ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:১২ | অনলাইন সংস্করণ

নতুন আরেকটি দুর্নীতির মামলায় পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হয়েছে। অর্জিত সম্পদের বাইরের বিনিয়োগের কারণে আজ সোমবার ইসলামাবাদের দুর্নীতি বিরোধী আদালত তাকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দেন।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, আজ রায় ঘোষণার জন্য কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা জারি করা হয় ইসলামাবাদের আদালতে। কারণ নেতাকে জেলে পাঠানো হলে আগে থেকেই গণ আন্দোলনের হুমকি দিয়ে আসছিল সাবেক ক্ষমতাসীন দল নাওয়াজ শরীফের পাকিস্তান মুসলিম লীগ। সংসদীয় ব্যবস্থা অব্যাহত রাখার হুমকিও দেয় তারা।

এদিকে রায় ঘোষণার পর আদালত প্রাঙ্গণের বাইরে নওয়াজ শরীফের সমর্থকদের ওপর টিয়ার গ্যাস ও লাঠিচার্জ করে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।

আদালত জানিয়েছেন, সৌদি আরবের স্টিল মিল আল-আজিজিয়ার যে বিনিয়োগ, তার কোনো উৎস দেখাতে ব্যর্থ হওয়াতেই নওয়াজের বিরুদ্ধে এই রায় দেওয়া হয়েছে।  
নওয়াজ শরীফ বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রাণাদিত।’ সর্বশেষ এ অভিযোগের বিরুদ্ধে তিনি আপিল করবেন বলেও জানান ক্ষমতাচ্যুত এ প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে প্রমাণের অভাবে লন্ডনে চারটি বিলাসবহুল বাড়ির মালিকানা নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগে নওয়াজকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।একই সঙ্গে দেশের বাইরে আত্মগোপনে থাকা হাসান ও হুসাইন নামে তার দুই ছেলেকে ফাঁসির আদেশ দেওয়া হয়।  

পাকিস্তানের শীর্ষস্থানীয় পত্রিকা দ্য ডনের নিউজে বলা হয়, আদালত থেকে নওয়াজ শরীফকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। খুব শিগগিরই তাকে কারাগারে পাঠানো হবে।  

গত জুলাইয়ে  দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় বিভিন্ন দুর্নীতির মামলায় নওয়াজ শরীফকে কারাগারে ছিলেন। কিন্তু গত সেপ্টেম্বরে করা আপিল আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ইসলামাবাদের হাইকোর্ট তার ১০ বছরের কারাদণ্ড স্থগিত করেন।

গত জুলাইয়ে নওয়াজ জেলে থাকা অবস্থায় তার দল সাধারণ নির্বাচনে হেরে যায়। দুর্নীতিবিরোধী অভিযান চলার পর এ নির্বাচনে অধিকাংশ আসনে জেতেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের প্রধান (পিটিআই) সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খান।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে