আশ্রয় পেলেন সৌদি তরুণী

  অনলাইন ডেস্ক

০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১২:৫৪ | অনলাইন সংস্করণ

থাইল্যান্ডে সাময়িকভাবে থাকার অনুমতি পেয়েছেন ঘরপালানো সৌদি তরুণী রাহাফ মোহাম্মেদ আল-কুনুন (১৮)। গতকাল সোমবার জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার সঙ্গে কথা বলার পর তিনি বিমানবন্দর ছাড়েন বলে জানিয়েছেন দেশটির পুলিশ প্রধান।  

রাহাফ জানিয়েছে, থাই কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমঝোতা এবং শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআরের দেখভালে তিনি নিরাপদ বোধ করছেন।

রাহাফের কথা প্রথম জানা যায় গত শনিবার। সে কুয়েত থেকে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার পথে নেমেছিল ব্যাঙ্ককের সুবর্ণভূমি বিমানবন্দরে। সেখানেই থাকতে চেয়েছিল কিন্তু তাকে থাইল্যান্ডে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। থাইল্যান্ডের সৌদি দূতাবাস থেকেই অনুরোধ করা হয়েছিল, রাহাফকে যেন বিমানবন্দরেই গ্রেপ্তার করে দেশে ফেরত পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, গত রোববার তাকে কুয়েত এয়ারওয়েজের বিমানে ফেরত পাঠানোর কথা ছিল। কিন্তু কিছুতেই রাজি হননি রাহাফ। হোটেলের ঘরের দরজাই খোলেননি। তিনি জানান, তিনি দেশে ফিরলে ভাইরা তাকে খুন করবে। তারা কুয়েতে সৌদির দূতাবাসে অপেক্ষা করছে।

টুইটারে রাহাফ লেখেন, ‘আমি জীবনকে ভালোবাসি। কিন্তু আমার পরিবার আমাকে নিজের মতো বাঁচতে দিতে চায় না। রাহাফের সাহায্যে এগিয়ে এসেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ মানবাধিকার সংগঠনও। থাইল্যান্ডের কয়েক জন আইনজীবীও কোর্টে আর্জি জানিয়েছেন, রাহাফকে যেন কিছুতেই সৌদিতে  ফেরত না পাঠানো হয়।’

তুরস্কের দূতাবাসে সাংবাদিক খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে পশ্চিমা মিত্রদের সঙ্গে সৌদির সম্পর্কের টানাপোড়েনের মধ্যেই থাইল্যান্ডের বিমানবন্দরে রাহাফের এ ঘটনা ঘটলো। শুরুতে অভিবাসন কর্মকর্তারা তাকে ফেরত পাঠানোর পরিকল্পনা করলেও পরে তা থেকে সরে এসেছেন।

জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) একজন প্রতিনিধি তার সঙ্গে সাক্ষাতের পর অভিবাসন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেন। ওই সাক্ষাতের পর থাইল্যান্ডের প্রধান অভিবাসন কর্মকর্তা বলেন, রাহাফকে ফেরত পাঠানো করা হচ্ছে না। তাকে ইউএনএইচসিআরের অধীনে ব্যাংককে নিরাপদ হেফাজতে নেওয়া হবে। তাকে শরণার্থী মর্যাদা দেওয়ার জন্য কাজ করবে ইউএনএইচসিআর।

থাইল্যান্ডে ইউএনএইচসিআরের প্রতিনিধি গুইসেপ দ্য ভিনসেন্টিস বলেছেন, রাহাফের বিষয়টি সমাধান না হওয়া পর্যন্ত তার জন্য বিপজ্জনক কোনো দেশে তাকে পাঠাবে না থাই কর্তৃপক্ষ।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে