ফ্যাশনে নাক ফুল, কানের দুল

  অনলাইন ডেস্ক

৩০ অক্টোবর ২০১৭, ১০:৪৫ | আপডেট : ৩০ অক্টোবর ২০১৭, ১১:১৭ | অনলাইন সংস্করণ

এমন একটা সময় ছিল, যখন ছোটবেলাতেই কান এবং নাকে দুল পরিয়ে দেওয়া হত। যদিও গত কয়েক বছরে এই প্রথা বেশ জনপ্রিয়তা হারিয়েছে। তবে ইদানিং আবারও সেই পুরনো স্মৃতি ফিরে এসেছে। এখন ফ্যাশন মানেই শাড়ির সঙ্গে নাকফুল ও কানে মানানসই দুল। আমরা অনেকেই হয়তো জানি না যে নাকে কানে অলঙ্কার পড়ার অনেক ইতিবাচক দিকও আছে। বিজ্ঞানসম্মতভাবে এই নিয়মগুলির অনেক উপকারিতা রয়েছে। যেমন- নাকে, কানে দুল পরলে তা আকুপাংচারের কাজ করে। অর্থাৎ শারীরিক এবং মানসিক নানা সমস্যার সমাধান করতে সাহায্য করে। এখানেই শেষ নয়, কানে দুল পড়লে আমাদের কানের লতিতে চাপ পড়ে। এর ফলে আমাদের খিদে বাড়ে এবং হজম প্রক্রিয়ার উন্নতি ঘটে। এর কারণ আমাদের কানে হাঙ্গার পয়েন্ট থাকে।

কিভাবে নাক আর কানের দুল আমাদের সুস্থ থাকতে সাহায্য করে-

সন্তান ধারণের ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়

বিজ্ঞানসম্মতভাবে নারীদের নাকের বাম দিক জনন অঙ্গের সঙ্গে যুক্ত। এই কারণে নাকে ফুল পড়লে তা সরাসরি জনন প্রক্রিয়ায় প্রভাব বিস্তার করে। ফলে নারীদের গর্ভধারণে কোন সমস্যা থাকলে তা প্রতিহত হয়। সেইসঙ্গে সহজে গর্ভধারণের পথ প্রশস্ত হয়। আবার নাকফুল এবং দুল পরলে প্রসব যন্ত্রণা থেকেও মুক্তি মেলে। অনেক জায়গায় এমন বিশ্বাসও প্রচলিত আছে, নাকফুল পরলে সন্তান প্রসব অনেকটাই বেদনাহীন হয়ে যায়।

স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পায়

কানে দুল পরলে শুধু যে সুন্দর দেখায়, তা কিন্তু নয়! এটি আমাদের স্মরণশক্তি বৃদ্ধি করতেও সাহায্য করে। আসলে দুল পরার কারণে মস্তিষ্কের বিশেষ বিশেষ অংশে রক্তের প্রবাহ বেড়ে যায়। ফলে অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্তের জোগান বেড়ে যাওয়ার কারণে স্বাভাবিকভাবেই ব্রেন পাওয়ার বৃদ্ধি পায়।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে

কানের ঠিক মাঝামাঝি অংশে দুল পরা খুবই ভাল। কানের এই অংশটিতে ক্রমাগত চাপ পড়তে থাকলে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। অন্যদিকে, নাকে ফুল এবং কানে দুল পরলে নারীদের ক্ষেত্রে অনিয়মিত ঋতুস্রাবের সমস্যাও দূর হয়।

স্পার্ম কাউন্ট বেড়ে যায়

নারীদের পাশাপাশি আজকাল ফ্যাশনে অনেক পুরুষকেই কানে দুল পরতে দেখা যায়। কেউ পড়েন বংশ পরম্পরার কারণে, তো কেউ পড়েন শুধুই ফ্যাশনের খাতিরে। তবে কারণ যাই হোক না কেন, বেশ কিছু কেস স্টাডিতে দেখা গেছে, পুরুষেরা কানে দুল পরলে তাদের স্মার্ম কাউন্ট চোখে পরার মতো বৃদ্ধি পায়। ফলে বাচ্চা হওয়া ক্ষেত্রে কোন অসুবিধাই হয় না।

দৃষ্টিশক্তির উন্নতি ঘটে

আকুপাংচারের নিয়ম অনুযায়ী, কানের মধ্য অংশের সঙ্গে সরাসরি চোখের যোগ থাকে। এই কারণেই তো কানের এই অংশে দুল পরলে দৃষ্টিশক্তি উন্নতি ঘটতে শুরু করে।

শ্রবণ ক্ষমতা বাড়ে

কানের ছিদ্রে যে আকুপাংচার পয়েন্ট থাকে, তাকে মাস্টার সেন্সর এবং মাস্টার সেরেব্রাল বলা হয়ে থাকে। কানের এই অংশটিই আমাদের শ্রবণ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। সেই কারণেই তো কানে দুল পরলে শ্রবণশক্তির উন্নতি ঘটে। শুধু তাই নয়, বিশেষজ্ঞদের মতে কানে দুল পরলে ধনুষ্টঙ্কার রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা হ্রাস পায়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে