নতুন বছর হোক ভালোবাসার বছর

  আয়েশা সিদ্দিকা

০২ জানুয়ারি ২০১৮, ১১:৪৭ | অনলাইন সংস্করণ

নতুন শুরুর আশায় পুরনো ব্যর্থতা ভুলে নতুন বছরকে বরণ করে মানুষ। তারা চায়, নতুন বছরে জীবনটাকে নতুন করে সাজাতে। এজন্য শুধু লক্ষ্যই নির্ধারণ নয়, বরং তা পূরণে তারা কাজ করারও পরিকল্পনা করে। যে কারও ওপর রাগ করাটা অনেক সহজ। কিন্তু আপনি যাকে পছন্দ করেন তাকে সেকথা বলতে পারাটা ঠিক ততটাই কঠিন। সেরকম আপনারও অনেক কথা থাকতে পারে যেটি ২০১৭ সালে বলতে পারেননি। তাই বলে যে ২০১৮ সালেও তা বলতে পারবেন না তা তো নয়। একটু সাহসী হয়েই নিজের পছন্দের মানুষকে বলে ফেলুন মনের কথা। সবকিছু ঠিক থাকলে ২০১৮ সালটা দেখবেন আপনার ভালোবাসায় কাটবে।  

তবে পছন্দের মানুষকে মনের কথা বলার আগে টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে জেনে নিন কিছু বিষয়-

অবিবাহিত কিনা

অনেকদিন থেকেই কাউকে পছন্দ করেন, কিন্তু তাকে কোনমতেই বলতে পারছেন। এমনটি হলে নতুন বছরে ভয় ও জড়তা একেবারেই জেড়ে ফেলুন। এক্ষেত্রে আপনার প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হলো- আপনি আগে জেনে নিন যাকে পছন্দ করছেন সে বিবাহিত নাকি অবিবাহিত। যদি সিঙ্গেল হয় তাহলে সামনের দিকে পা বাড়ান। ভালোভাবে জানতে দুজনে একসঙ্গে কিছুটা সময়ও কাটাতে পারেন। যদি দেখেন যে তার পছন্দের কেউ নেই সেক্ষেত্রে দেরি না করে চটজলদি মনের কথা বলে ফেলুন।

পরস্পরকে ভালোভাবে জানুন

যদি আপনারা দুজনই কোন সম্পর্কে জড়াতে উচ্ছুক হন তাহলে পরস্পরকে আরও ভালোভাবে জানুন। এক্ষেত্রে ছোটখাট যে কোন বিষয়ে বিশেষ করে কোন উপন্যাস তার পছন্দ কিংবা তার শখ কি এসব বিষয়ে আগ্রহ দেখান। নানা সূক্ষ বিষয়ে জানার আগ্রহ আপনাদের মধ্যে বোঝাপড়া মজবুত করার পাশাপাশি ভালোবাসা বাড়াবে।   

চোখের যোগাযোগ

চোখ যে মনের কথা বলে- কথাটি চিরন্তন সত্য। আপনি যদি প্রেমে পড়েন তাহলে চোখের ভাষায় তা বলে দেবে। একজন মানুষের চোখ দেখেই অনেক কিছুই বুঝে নেওয়া সম্ভব। আর প্রেম, ভালোবাসার ক্ষেত্রে চোখের বিষয়টি তো আমরা কোনমতেই এড়াতে পারিনা। কাজেই চোখের সাহায্যেও আপনি মনের মানুষকে অনুভূতি বোঝাতে পারেন।

লজ্জা পাবেন না

যে কোন সম্পর্কের ক্ষেত্রেই বড় বাধা হলো দ্বিধা কিংবা লজ্জা পাওয়া। প্রতিদানহীন ভালোবাসা ভালো নয়, কিন্তু না বলা ভালোবাসা আরও খারাপ। এর মানে এই নয় যে, আপনি এখনই গিয়ে পছন্দের মানুষকে মনের কথা বলুন। বরং দ্বিধা-দ্বন্দ্বে না ভুগে স্পষ্টভাবেই তাকে আপনার অনুভূতির কথা জানান।   

সৎ থাকুন

দোষত্রুটি মিলিয়েই মানুষ। অবশ্য কখনও কখনও পরিস্থিতিতে পড়ে মানুষ নিজের মাঝে পরিবর্তন নিয়ে আসে। সেটা ভিন্ন কথা। আমরা কারও সঙ্গে ভালোবাসার সম্পর্কে জড়িয়ে পড়লে তার ইচ্ছা-অনিচ্ছাকে অনেক বেশি গুরুত্ব দেই। আসলে সম্পর্ক আরও মজবুত করতেই আমরা এটা করে থাকি। এর চেয়ে বরং নিজের প্রতি সৎ থাকুন এবং তাকে আপনার ত্রুটিগুলো জানতে দিন। এতে আগে থেকেই আপনার সম্পর্কে তার স্বচ্ছ একটা ধারণা তৈরি হবে। এর ফলে বিয়ের পর সম্পর্ক ভাঙার আর কোন আশঙ্কা থাকবে না।          
         

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে