• অারও

যেসব খাবারে হিমোগ্লোবিন বাড়বে

  আয়েশা সিদ্দিকা

০৩ জানুয়ারি ২০১৮, ১০:৪৯ | আপডেট : ০৩ জানুয়ারি ২০১৮, ১০:৫৫ | অনলাইন সংস্করণ

আপনি ক্লান্ত এবং দুর্বল অনুভব করছেন, শ্বাস নিতে কষ্ট হয়, ঘন ঘন মাথাব্যাথা করে, ক্ষুধা কম লাগে? এসব লক্ষণ কিন্তু বেশিদিন অবহেলা করা ঠিক নয়। এমন সমস্যা দেখা দিলেই বুঝবেন, আপনি কম হেমোগ্লোবিনে ভুগছেন। হিমোগ্লোবিন হলো লোহিত রক্তকণিকার আয়রনসমৃদ্ধ একটি প্রোটিন, যা দেহে অক্সিজেন বহন করে। অন্যদিকে কোষ থেকে কার্বন ডাই অক্সাইড ফুসফুসে ফেরত পাঠাতেও সাহায্য করে এটি। মানুষের শরীরের স্বাভাবিক কার্যক্রমের জন্য হিমোগ্লোবিন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই শরীরে এর স্বাভাবিক স্তর বজায় রাখা খুবই জরুরি। বিশেষজ্ঞদের মতে, হিমোগ্লোবিনের স্বাভাবিক মাত্রা হলো প্রাপ্তবয়স্ক একজন পুরুষের জন্য ১৪ থেকে ১৮ গ্রাম / ডিএল এবং নারীর জন্য ১২ থেকে ১৬ গ্রাম / ডিএল।

অ্যানিমিয়া হলো প্রধান স্বাস্থ্য সমস্যাগুলোর মধ্যে অন্যতম, যেটি নিম্ন স্তরের হিমোগ্লোবিনের জন্য দায়ী। নারীদের গর্ভকালীন সময়ে কিংবা মাসিক ঋতুচত্রের সময় হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কমে যায়। আবার সার্জারির পর রক্তপাতের কারণেও হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কমে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে কেবল পুষ্টিকর খাবার।

লাইফস্টাইল বিষয়ক ওয়েবসাইট ‘বোল্ডস্কাই ডট কম’ অবলম্বনে জেনে নিন হিমোগ্লোবিন বাড়ায় যেসব পুষ্টিকর খাবার-

ফলিক অ্যাসিড

শরীরে ফলিক অ্যাসিড তথা ভিটামিন বি কমপ্লেক্স কমে গেলে হিমোগ্লোবিনের মাত্রাও কমে যায়। তাই ঘাটতি পূরণে বেশি পরিমাণে শাকসবজি, বাদাম, কলিজা,  সিরিয়াল এবং কলা খান।  

আয়রন

আয়রন হলো এমন এক ধরনের পুষ্টি যেটি হিমোগ্লোবিনের উৎপাদনে সাহায্য করে। আয়রন সমৃদ্ধ খাবারগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো-কলিজা, লাল মাংস, পালং শাক, বাদাম, খেজুর, ডাল  প্রভৃতি। নিয়মিত এই খাবারগুলো হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে।

ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল

ভিটামিন সি এর কারণেও শরীরে হিমোগ্লোবিন কমে যেতে পারে। তাই এর মাত্রা বাড়াতে বেশি করে কমলা, লেবু স্ট্রবেরি, আঙ্গুর, টমেটো, পেঁপে, পালংশাক খান।   

বীট

হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়াতে প্রাকৃতিক উপাদানগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো বীট। এতে আয়রন, পটাশিয়াম, ফলিক অ্যাসিড, ফাইবার রয়েছে, যা হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়াতে কাজ করে। একটি বীট ও দুটি গাজর একসঙ্গে মিলিয়ে ব্লেন্ড করে প্রতিদিন এক গ্লাস করে পান করলে উপকার পাবেন।

আপেল

প্রচলিত আছে, একটি আপেল ডাক্তার থেকে দূরে রাখে। প্রতিদিন আয়রন সমৃদ্ধ এই ফলটি খেলে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়ে। চাইলে আপেলের জুসও খেতে পারেন। আবার এর সঙ্গে মিলিয়ে বিট, লেবু ও খানিকটা আদাও যোগ করতে পারেন। দিনে দুইবার এই জুস পানে উপকার পাবেন।            

 

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে