• অারও

ভাতে শর্করা বেশি থাকে

  ডা. আলমগীর মতি

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:৫৭ | অনলাইন সংস্করণ

বাঙালির প্রধান খাবার ভাত। এটি কার্বোহাইড্রেট বা শর্করা জাতীয় খাবার। শর্করা জাতীয় খাবার (যেমনÑ ভাত, আলু, রুটি) দেহে শক্তি জোগায়, মাংসপেশি করে বলিষ্ঠ এবং রোগ-জীবাণুর সঙ্গে বাড়ায় দূরত্ব। সাদা চালের তুলনায় ঢেঁকিছাঁটা চালে পুষ্টি বেশি। লালচে এ চালে আছে ভিটামিন ‘বি’। ভিটামিন ‘বি’ বেরিবেরি রোগ প্রতিরোধ করে এবং দেহের স্নায়ুগুলো করে শক্তিশালী। বয়স্কদের মস্তিষ্কের শিরা-উপশিরার স্নায়ুগুলো সঠিকভাবে কাজ করতে পারে না। পরিণামে তৈরি হয় বিভিন্ন ধরনের জটিলতা। এ অসুখটির নাম অ্যালজাইমারস। এ সমস্যার আরেক নাম স্নায়ুবৈকল্য। গবেষণায় দেখা গেছে, যারা নিয়মিত ভিটামিন ‘বি’ খায়, তাদের স্নায়ু দুর্বল হওয়ার আশঙ্কা থাকে কম। ভাতে আছে প্রচুর পরিমাণে পানি ও ট্রাইগ্লিসারাইড নামক উপাদান, যা দেহের ওজন বাড়ায়, শরীর রাখে সচল। ক্যালরি বা শক্তি আছে ভাতে। এ ক্যালরি মানুষকে দেয় দ্বিগুণ পরিমাণে কাজ করার ক্ষমতা। ভাতের শর্করা দেহের প্রতিটি রক্তকণিকাকে করে অধিক কার্যকর। তবে যাদের বয়স ও উচ্চতা অনুযায়ী ওজন বেশি, তাদের জন্য অল্প পরিমাণে ভাত প্রযোজ্য। ভাত রক্তে বাড়ায় চিনির পরিমাণ, যা ডায়াবেটিস বেড়ে যাওয়ার প্রধান কারণ। যারা দৈহিক পরিশ্রম করেন, তাদের জন্য ভাত উপযুক্ত খাবার। তবে এ ক্ষেত্রে ভাতের সঙ্গে অন্যান্য খাবারের সাম্যাবস্থা থাকতে হবে। অর্থাৎ ভাতের তুলনায় সবজি ও আমিষের পরিমাণ (মাছ, মাংস, ডাল, ডিমসহ যে কোনো সবজির বিচি) বেশি থাকা উচিত। আর ভাতের মাড় ফেলে না দিয়ে মাড়সহ ভাত খান। এতে শর্করার পরিমাণ বেশি থাকে।

লেখক : বিশিষ্ট হারবাল গবেষক ও চিকিৎসক। ০১৯১১৩৮৬৬১৭

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে