ভালোবাসা দিবস ভালো না!

  অনলাইন ডেস্ক

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১২:০২ | আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৩:৫৬ | অনলাইন সংস্করণ

‘সখী, ভালোবাসা কারে কয়! সে কি কেবলই যাতনাময়’-ভালোবাসা যাতনাময় হোক বা না হোক, আজ বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। এই দিনটি অনেকের কাছে যেমন উত্তেজনাময়। তেমন অনেকের কাছে এদিনটি মাসিকভাবে ক্ষতিকর দিন। এমন অনেক সিঙ্গেল বা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বন্ধু আছে যাদের কাছ থেকে শুনে থাকবেন তারা ভালোবাসা দিবসকে ঘৃণা করেন এবং এটি অসহ্যকর।

ভালোবাসার এই দিনটি অনেকের কাছে যেসব কারণে অসহ্যকর, তেমন ৫ টি কারণ জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

সম্পর্ক না হওয়ায় মাসনিক অবসাদ

আপনি এটা মনে নাও করতে পারেন, কিন্তু অনেকের কাছে প্রতি বছর ভ্যালেন্টাইন ডে মানসিক বিপর্যয়ের মধ্য দিয়ে যায়। যারা কোন সম্পর্কে জড়াননি তাদের মনের মধ্যে একটাই প্রশ্ন তাড়া করে ‘বিশেষ এই দিনে’ কেন তারা একাকি। প্রথম দিকে এটি মজার হতে পারে কিন্তু পরবর্তীতে এটি সিঙ্গেলদের মনে বড় ধরণের প্রভাব ফেলতে পারে।

অনেকের অনুভূতি সত্য না

এমন অনেক চিজিয়েস্ট কাপল রয়েছে যাদের সম্পর্ক ভাঙার দীর্ঘ দিন পর এক সাথে হতে দেখা যায় এই ভ্যালেন্টাইন সপ্তাহ’র মধ্যে। এটা সাধারণত বলা চলে না যে তারা একে অন্যকে ঘৃণা করে, কিন্তু তারা অবশ্যই একে অন্যকে ভালোবাসে না। এই দিনটিতে তারা তাদের মনের মধ্যে লুকিয়ে থাকা এই অনুভূতি দমিয়ে রাখাতে পারেননা।

ভালোবাসা সম্পর্কে শিশুদের মধ্যে ভুল ধারণা হতে পারে

শুধুমাত্র এই একটি দিনে ভালোবাসা হিসেবে পালান করা শিশুদের জন্য বড় কোন উদাহরণ না। এটা শুধু তাদের ভুল শিক্ষাই দেয় না, বরং প্রথম দিকে তাদের মনে ভালোবাসা সম্পর্কে ভুল ধারণা জন্ম দিতে পারে। শুধুমাত্র একটি দিন এটাকে ঘটা করে পালান না করে আমাদের মা-বাবা, বন্ধু এবং কাছের মানুষের জন্য ভালোবাসা সব সময় থাকা উচিত।

অপ্রয়োজনীয় মনোযোগ

ভালোবাসা দিবস নিয়ে কিছু অপ্রয়োজনীয় মনোযোগ এদিনটিকে ঘৃণা করার সংখ্যাগরিষ্ঠা বাড়িয়ে দেওয়ার প্রধান কারণ হতে পারে। অনেকে এই দিনটি পালন করার জন্য ছুটি নিয়ে থাকেন। যদিও এটি অনেকে ভালোবাসা দিবস হিসেবে পালন করেন, কিন্তু অনেকে মনে করেন এটি কোন উৎসব বা মহান কোন দিন নয় যে তার জন্য ছুটি নিতে হবে। ব্যয়বহুল উপহার দেওয়া, ব্র্যান্ডের কোন পণ্য বা এদিন শুধু ভালোবাসা দেখানো ঠিক সবার কাছে সুখের দিন হতে পারে না।

ব্যয়বহুল উপহার   

ভ্যালেন্টাইন ডে’র জন্য ব্যয়বহুল উপহার বিক্রির জন্য অনেক দোকানিরা প্রতারণামূলক কৌশল অবলম্বন করে থাকেন। তারা শুধু ভালোবাসার কথা বলে না বরং এর বাইরে বিপুল মুনাফা অর্জন করে থাকেন। কিছু সাধারণ আইটেম যেমন ফুল, চকলেট বা কেকের দাম বাড়িয়ে দেয় তারা। সব মিলিয়ে এই দিনটি অনেকের কাছে অসহ্যকর হয়ে থাকে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
close