লক্ষণই বলে দেবে সে তোমার নয়, অন্য কারো

  অনলাইন ডেস্ক

২৯ মার্চ ২০১৮, ১৪:৫৭ | আপডেট : ২৯ মার্চ ২০১৮, ১৫:০৮ | অনলাইন সংস্করণ

প্রত্যেক মানুষের জীবনেই প্রেম আসে। তবে কার প্রেমে পড়বেন কিংবা সেই মানুষটা কেমন হবে তা বোঝা মুশকিল। আবার আপনি যার প্রেমে পড়লেন সে আপনার মতো নাও হতে পারে। এমনও হতে পারে সে হয়তো চাপে পড়েই আপনার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছে। তাই আপনাকে নিয়ে তার তেমন কোনো মাথাব্যাথা নেই। আপনি তার সঙ্গে থাকলেন নাকি চলে গেলেন তাতেও তার কিছু যায় আসে না। এমন কিছু লক্ষণ আছে যেগুলো আপনাকে সহজেই বুঝিয়ে দেবে সে আপনাকে সত্যিই ভালোবাসে নাকি অন্য কাউকে।   

এ বিষয়ে কিছু লক্ষণের কথা জানিয়ে দিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া-  

আপনার প্রতি আগ্রহ কম

দ্বিধা প্রায় সব সম্পর্কেই প্রধান একটি বিষয়। আপনি কারো প্রেমে পড়ে তার প্রতি নিজের অনুভূতির কথা জানালেন। সেই মুহূর্তে সে কীে মনে করবে এমনটা ভেবে মনের মধ্যে আগে থেকেই একটা দ্বন্দ্ব দেখা দেয়। হয়তো ভাবেন, সে আপনাকে গ্রহণ করবে কি না। যাহোক, সে আপনাকে গ্রহণ করলো। কিন্তু সময় পেলেই সে আপনার অনুভূতিতে আঘাত করে। এমন পরিস্থিতিতে একটি প্রশ্ন মনের মধ্যে আসতেই পারে, সে আপনাকে সত্যিই ভালোবাসে তো? আসলে তার ভালোবাসায় ঘাটতি আছে বলেই সে আপনার প্রতি ততটা আগ্রহ দেখায় না।   

মা-বাবার সঙ্গে পরিচিত না করা

অনেক বছর ধরেই ভালোবাসার সম্পর্কে জড়িয়ে আছেন। কিন্তু এতদিনেও আপনার সঙ্গী তার মা-বাবার সঙ্গে আপনার পরিচয় করায়নি। এমনকি তার বন্ধুদের কাছে আপনার অস্তিত্বে জানান দিতে চায় না। বিষয়টি জানতে চাইলে সে সবসময় নানা অজুহাতে এড়িয়ে যায়। এমনটি হলে বুঝবেন সে কখনোই আপনাকে ভালোবাসে না।

ভবিষ্যত পরিকল্পনায় অনাগ্রহ

পছন্দের মানুষের কাছে নিজের ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে কথা বলছেন কিন্তু সে শুনেও না শোনার ভান করছে। কিছুই বলছে না। পরিস্থিতি এমনই যে আপনি কোনো আগন্তকের সঙ্গে কথা বলছেন যার আপনার কোনো বিষয়েই আগ্রহ নেই। সে আপনার চেয়ে কোথাও ঘুরতে যাওয়া এবং আনন্দ করাই বেশি প্রাধান্য দিচ্ছে। আপনার সঙ্গী এমন হলে তার কাছ থেকে সরে আসুন।

সময় দিতে চায় না

সঙ্গীর সঙ্গে নয়, বরং বন্ধুদের সঙ্গেই আপনার সাপ্তাহিক ছুটি কাটে। সে কখনোই আপনাকে সময় দিতে চায় না। আপনি যখন তাকে নিয়ে কোথাও যাওয়ার পরিকল্পনা করেন সে তখন তার বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে যায়। সে একা কখনোই আপনাকে সময় দিতে চায় না। এমন চিহ্ন দেখলেও তার কাছ থেকে সরে যাওয়াই ভালো। 

আপনার সঙ্গে তার অস্বস্তি

ভালোবাসলে জুটিরা একে অপরের সঙ্গে থাকতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ বোধ করে। কিন্তু আপনার সঙ্গী এতে আপত্তি পোষণ করে। এমনটি হলেও বুঝবেন, আপনি যাকে ভালোবাসেন সে আপনার পছন্দের সঠিক মানুষ নয়।

দুঃখিত না বলা

যে কোনো সম্পর্কে দ্বন্ধ এবং কথা কাটাকাটি হবে এটাই স্বাভাবিক। আবার ঝগড়ার পর সম্পর্ক স্বাভাবিক হয়। একে অপরের কাছে দুঃখিত বলে নিজেদের মধ্যকার ভুল বোঝাবুঝির অবসান করে। কিন্তু ভুল করার পরও যদি আপনার সঙ্গী কখনোই আপনার কাছে দোষ স্বীকার না করে তাহলে এটিও একটি লক্ষণ। সে আপনাকে ভালোবাসে না বলেই এমনটি করে থাকে। যদি আপনি সত্যিই কাউকে ভালোবেসে থাকেন, তাহলে তার কাছে ক্ষমা চাওয়াটা অনেক সহজ। কিন্তু এর উল্টোটা ঘটলে বুঝবেন আপনার সঙ্গী আপনার সঙ্গে সম্পর্কে আগ্রহী নয়।  

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে