টাক সমস্যা সমাধানে ৫ খাবার

  অনলাইন ডেস্ক

০৯ এপ্রিল ২০১৮, ১১:৪৩ | আপডেট : ০৯ এপ্রিল ২০১৮, ১২:০১ | অনলাইন সংস্করণ

প্রতীকী ছবি
সুন্দর চুল মানুষকে আরও সুন্দর করে তোলে। মাথায় চুল কম বা টাক সমস্যা অনেককেই চরম অস্বস্তির মধ্যে ফেলে। অনেক ক্ষেত্রেই টাকের চিকিৎসা বেশ ব্যয়বহুল। তাই প্রাকৃতিক উপায়ে টাক সমাধান করা গেলে তা হয়তো অনেকের কাছে সুখবরই হবে।

সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে এমন প্রাকৃতিক কিছু খাবারের কথা বলা হয়েছে যা দিতে পারে চুল পড়া ও টাক সমস্যার সমাধান। তো দেখে নেওয়া কী সেই খাবারগুলো-

আমিষজাতীয় খাদ্য

টাক সমস্যা থেকে দূর করতে নিয়মিত আমিষ খাওয়া জরুরী। তাই খাবারের তালিকায় ডিম, দুধ, দই,  পনিরসহ দুগ্ধজাতীয় খাবার রাখতে চিকিৎসকরা পরামর্শ দেন। এসব খাবারে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি৭, আয়রন, জিঙ্ক এবং ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিডসহ নানা পুষ্টি উপাদান রয়েছে। এতে মাথায় প্রচুর চুল গজায়, চুলের আগা মজবুত হয়। চুল হয় ঝলমলে।

ওটস

টাক সমস্যা সমাধানে ওটস জাদুকরি ভূমিকা পালন করে। ওটসে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, জিঙ্ক, ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিড ও ভিটামিন বি রয়েছে। যা চুল গজাতে সাহায্য করে। এ ছাড়া চুলের আগা মজবুত করতে নিয়মিত ওটস খাওয়া খুব উপকারি।

কাজুবাদাম

সুস্বাস্থ্যের জন্য কাজুবাদামের কোনো বিকল্প নেই। প্রতিদিনের ডায়েট চার্টে অনেকেই স্ন্যাকস হিসেবে কাজুবাদাম রাখেন। কাজুবাদামে প্রচুর পরিমাণে বায়োটিন ও ম্যাগনেসিয়াম উপস্থিত যা চুলের স্বাস্থ্য ভালো রেখে দ্রুত বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। তাই উজ্জ্বল, ঘন চুলের জন্য কাজুবাদাম খাওয়ার বিকল্প নেই।

আখরোট

আখরোট বাদামে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা ফ্যাটি অ্যাসিড ও ভিটামিন বি-৭ উপস্থিত। নিয়মিত আখরোট খেলে চুল মজবুত হয়, চুল পড়া কমে। এমনকি নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। তাই চুল পড়া কমাতে আখরোট খাওয়া খুবই উপকারি।

স্ট্রবেরি

স্ট্রবেরিতে প্রচুর পরিমাণে সিলিকা নামক খনিজ পদার্থ আছে। যা নতুন চুল বৃদ্ধিতে কাজ করে। এছাড়া এতে আছে অ্যালাগিক অ্যাসিড। এই অ্যাসিড যা চুল পড়া রোধ করে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে