ব্রণ সারাতে ঘরোয়া টোটকা

  অনলাইন ডেস্ক

০৩ অক্টোবর ২০১৮, ১৩:২৬ | আপডেট : ০৬ অক্টোবর ২০১৮, ১৪:৪৮ | অনলাইন সংস্করণ

চকচকে ত্বকে হঠাৎ করে গজিয়ে ওঠে একটা ব্রণ। আর সেই একটা থেকে অল্প দিনেই ১০টা। আর তারপর যত সময় এগুতে থাকে,তত ব্রণের সংখ্যা বাড়তেই থাকে। সেই সঙ্গে ত্বকের বারোটা বেজে যেতেও সময় লাগে না। আর এমনটা যখন হতেই থাকে তখন রাতের ঘুম তো ওড়েই,সেই সঙ্গে লেজুড় হয় ত্বক খারাপ হয়ে যাওয়ার দুশ্চিন্তাও। এমন মানসিক যন্ত্রণায় বারবার জর্জরিত হতে না চাইলে কতগুলো ঘরোয়া টোটকা ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। এতে ব্রণের প্রকোপ তো কমেই, সেই সঙ্গে ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

এমন কয়েকটি ঘরোয়া টোটকার কথা জানিয়েছে জীবনধারা বিষয়ক সাময়িকী বোল্ডস্কাই। চলুন জেনে নিই সেগুলো সম্পর্কে.....

তুলসি পাতা ও হলুদ

২০টা তুলসি পাতার সঙ্গে ২ চামচ হলুদ গুঁড়ো ভাল করে মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিন। তারপর সেই পেস্টটি প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস পানিতে হাফ চামচ করে মিশিয়ে খাওয়া শুরু করুন। এইভাবে ১৫-২০ দিন টানা খেলে দেখবেন ব্রণের প্রকোপ কমতে সময় লাগবে না। আর যদি দিনে তিনবার এই পেস্টটি খেতে পারেন,তাহলে তো কথাই নেই!

নিম পাতা ও গোলাপ জল

চটজলদি ব্রণের প্রকোপ যদি কমাতে চান তাহলে নিম পাতা ও গোলাপ জলকে কাজে লাগাতে ভুলবেন না যেন!কারণ এই দুটি উপাদানে উপস্থিত একাধিক উপকারী উপাদান একদিকে যেমন ব্রণর প্রকোপ কমায় তেমনি ত্বকের অন্দরে পি এইচ লেভেল বাড়তে শুরু করে। ফলে ত্বকের সৌন্দর্য বাড়তে সময় লাগে না।

সেলিসেলিক অ্যাসিড

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, এই উপাদানটি রয়েছে এমন ক্রিম মুখে লাগাতে শুরু করলে ব্রণের প্রকোপ কমতে সময় লাগে না। তবে এক্ষেত্রে একটি বিষয় মাথায় রাখাটা একান্ত প্রয়োজন। তা হলো এমন ক্রিম বেশি মাত্রায় লাগালে ত্বকের ক্ষতি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই এই বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে।

অ্যালোভেরা জেল

মাঝে মাঝে ব্রণের কারণে সারা মুখ জ্বালা করতে শুরু করে। আর তখনই আমরা খুঁটে ফেলি ব্রণগুলো। ফলে সারা মুখ দাগে দাগ হয়ে যায়। এক্ষেত্রে অ্যালোভেরা জেল ভালো কাজে আসতে পারে। এটি ব্রণের যন্ত্রণা কমানোর পাশাপাশি প্রদাহ কমাতেও সাহায্য করে। সেই সঙ্গে ত্বককে সুন্দর করে তুলতেও এই প্রকৃতিক উপাদানটির কোনো বিকল্প নেই বললেই চলে।

বরফের কেরামতি

ব্রণের প্রদাহ কমাতে এক্ষেত্রে আরেকটি জিনিস দারুণ কাজে আসে তা হলো বরফ। মুখের যেখানে যেখানে ব্রণ বেরিয়েছে সেখানে সেখানে বরফ ঘষা শুরু করুন। অল্প দিনেই দেখবেন ফল মিলতে শুরু করেছে।

কাজে লাগান টুথপেস্ট

শুনতে একটু আজব লাগছে, কি তাই তো! তবে ব্রণ কমাতে টুথপেস্ট কিন্তু দারুণ কাজে আসে। অল্প করে সাদা টুথপেস্ট নিয়ে ব্রণের উপর লাগিয়ে সারারাত রেখে দিন। সকালে দেখবেন ব্রণ একেবারে গায়েব হয়ে গেছে।

ডায়েটের দিকে নজর দিতে হবে

খাওয়ার সঙ্গেও কিন্তু ব্রণের একটা সরাসরি যোগ রয়েছে। তাই এই ধরনের ত্বকের রোগের প্রকোপ কমাতে ডায়েটের দিকে নজর দেওয়াটা একান্ত প্রয়োজন। এখন প্রশ্ন হল কী কী খাবার খেতে হবে এবং কী কী এড়িয়ে চলতে হবে? এক্ষেত্রে একজন দক্ষ ডায়েটেশিয়ানের পরামর্শ নেওয়া একান্ত প্রয়োজন।

পানির জাদু

দেহের ভেতরে টক্সিক উপাদানের মাত্রা বাড়তে শুরু করলেও অনেক সময় ব্রণের প্রকোপ বেড়ে যায়। এক্ষেত্রে শরীর থেকে ক্ষতিকর টক্সিন বের করে দিতে পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি খাওয়াটা জরুরি।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে