৭ দিনেই ওজন কমবে!

  আয়েশা সিদ্দিকা

১০ জানুয়ারি ২০১৭, ১১:২৪ | আপডেট : ১০ জানুয়ারি ২০১৭, ১১:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ

সবসময় ক্লান্তি লাগে। কাজ করতে একটুও ইচ্ছা করে না। এসব সমস্যা তখনই হয় যখন আপনার শরীরের ইমিউনের মাত্রা নিচে নেমে যায়। এ সময় আপনি নানা রোগেও আক্রান্ত হতে পারেন। এক্ষেত্রে সমস্যা সমাধানের একমাত্র দাওয়াই হতে পারে রসুন এবং মধু। রসুনে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিফ্লামেটরি বৈশিষ্ট্য থাকায় তা আমাদের শরীরের থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দিতে ভূমিকা রাখে। একইসঙ্গে ব্যথা কমাতেও জুরি মেলা ভার এই রসুনের। অন্যদিকে মধু অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টিফাংগাল এবং অ্যান্টিমাইক্রোবিলায়াল বৈশিষ্ট্য থাকায় তা বিভিন্ন সংক্রমণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে এবং আমাদের ইমিউনিটি বাড়াতে সাহায্য করে। কাজেই স্বাস্থ্য সুরক্ষায় রসুন এবং মধু একসঙ্গে খাওয়া ভালো।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, রসুনের কয়েক কোয়া নিয়ে কুচি কুচি করে কাটুন। পরে এর সঙ্গে মধু ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এই মধু মিশ্রিত রসুন খান। এভাবে সপ্তাহে ৭দিন খেলে পরিবর্তনটা নিজেই টের পাবেন।

কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করে
রসুন-মধু মিশ্রণটিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এবং মিনারেল রয়েছে, যা শরীরের কোলেস্টেরলের মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।

ওজন কমায়
ওজন কমাতে সবচেয়ে কার্যকারী হলো মধু। বিভিন্ন ধরনের পুষ্টি উপাদানে ভরপুর থাকায় রসুন-মধু শরীরের মেদ জমতে দেয় না। এর ফলে সহজেই ওজন কমে আসে।

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে
রসুনে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় তা রক্তনালীকে শিথিল রাখে। এতে রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণে থাকে।

গলা ব্যথা সারায়
রসুন-মধুতে অ্যান্টিফ্লামেটরি বৈশিষ্ট্য থাকায় তা গলা ব্যথা সারানোর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

হজমের সমস্যা দূর করে
গ্লাইসেমিক সূচক (এটি হলো খাবারের মূল্যায়ন সূচক; যেটি কোন খাবার কত দ্রুত কিংবা কত ধীরে রক্তে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধির কারণ তার উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়) সমৃদ্ধ হওয়ায় রসুন-মধু হজম সমস্যার সমাধান করে। পাশাপাশি ডায়রিয়া হলে তা থেকে আরোগ্য লাভ করতেও ভূমিকা রাখে এটি।

ঠাণ্ডা সমস্যার সমাধান
রসুন-মধুতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্য থাকায় তা বিভিন্ন সংক্রমণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে। ফলে সহজেই ঠাণ্ডা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

ছত্রাকজনিত রোগ থেকে বাঁচায়
রসুন-মধু ছত্রাক এবং ব্যাকটেরিয়া বিরোধী বৈশিষ্ট্য থাকায় তা এ সংক্রান্ত নানা রোগের হাত থেকে আমাদের বাঁচায়।

শরীরের বিষাক্ত পদার্থ দূর করে
শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থগুলো বের করে দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে রসুন-মধু। কাজেই সুস্থ থাকতে নিয়মিত এই খাবারটি খাওয়া ভালো।

তথ্যসূত্র: বোল্ডস্কাই ডট কম।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে